কক্সবাজার, বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০

অন্যায়ের বিরুদ্ধে আপোষহীন এবং নিরীহ মানুষের হাতিয়ার হিসেবে কাজ করছে সমুদ্রকন্ঠ- লে.কর্ণেল ফোরকান আহমদ

প্রধান সড়ক সম্প্রসারণ কক্সবাজারবাসির জন্য। সুতরাং কোন বাধা উপেক্ষা করা হবে না,অবৈধ দখল ছাড়ার জন্য আদর সোহাগ দিয়ে দেখছি,না ছাড়লে একদিনেই আমি নিজেই উপস্থিত থেকে ছাড়িয়ে নিবো । গতকাল মঙ্গলবার বিকালে কক্সবাজার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দৈনিক সমুদ্রকন্ঠের ১০ বছর পুর্তি অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় কউক চেয়ারম্যান লে. কর্ণেল (অব.) ফোরকান আহমদ এলডিএমসি, পিএসসি এসব কথা বলেন।

লে. কর্ণেল (অব.) ফোরকান আহমদ বলেন, সত্য প্রকাশে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে দৈনিক সমুদ্রকণ্ঠ। তাই তিনি ওই পত্রিকার পৃষ্ঠপোষক হিসেবে সাথে আছেন। অন্য যে সকল পত্রিকা সত্য ও ন্যায়ের পথে থাকবে তাদের সাথেও তিনি থাকবেন বলে আশা প্রকাশ করেন। তিনি অতীতের কিছু স্মৃতি টেনে বলেন, কক্সবাজারের উন্নয়ন করতে গিয়ে কথিত সাংবাদিক দ্বারা বেশি বাধাগ্রস্ত হয়েছে তবে তারা উন্নয়নের এই অগ্রযাত্রায় কিচ্ছু করতে পারেনি।

কউক চেয়ারম্যান বলেন, মানুষ এখন উন্নয়ন চায়,যারা উন্নয়নে বাধাগ্রস্থ করতে ষড়যন্ত্র করছে সাধারন মানুষই তাদের উপযুক্ত জবাব দিবে।

সড়কে অতিরিক্ত টমটম এর কারণে যানজটের যে সমস্য সৃষ্টি হচ্ছে তার জন্যেও দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান কউক চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, সড়কে টমটম চলাচলের অনুমতি দেওয়ার ক্ষমতা নেই বিআরটিএ ছাড়া অন্য কোন প্রতিষ্ঠানের। যারা এসব অবৈধ ব্যবসা চালাচ্ছেন এবং যে সকল অবৈধ টমটম চলছে সকল কিছুর বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা শুরু হবে।

কউক চেয়ারম্যান আরও বলেন, উন্নয়ন কতৃপক্ষের মাধ্যমে খুব শীঘ্রই সাংবাদিকদের জন্যে আবাসন প্রকল্পের কাজ শুরু হবে।

সভায় দ্যা ডেইলি স্টারের স্টাফ রিপোর্টার মুহাম্মদ আলী জিন্নাত বলেন, একজন সত্য প্রকাশ করে কোন লাভ হবে না, এই পথ চলায় সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। প্রেসক্লাব নিয়ে তিনি বলেন, প্রেস ক্লাব হতে হবে সকল পেশাদার সাংবাদিকের স্থান। সাংবাদিক হিসেবে প্রেস ক্লাবে সকলের অধিকার রয়েছে। তিনি আরও বলেন, সাংবাদিক একটি দেশের তৃতীয় চোখের মত। তিনি হুশিয়ারি কণ্ঠে বলেন, যারা ঝাপসা দেখছেন এই চোখ দিয়ে তাদের এখনো সময় আছে চোখ পরিস্কার করে প্রকৃত সাংবাদিকতায় ফিরে আসুন। না হয় মানুষ আপনাদের কঠিন শিক্ষা দিবে।

আলোচনা সভায় বক্তারা কক্সবাজার জেলার অন্যায়ের আপোষহীন পত্রিকা হিসেবে কাজ করে যাওয়ায় উপস্থিত অতিথিবৃন্দের প্রশংসায় ভূষিত হন পত্রিকার সম্পাদক ও সাংবাদিকগণ।

এদিকে,প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টায় দৈনিক সমুদ্রকন্ঠের প্রকাশ ও সম্পাদক মঈনুল হাসান চৌধুরী পলাশের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন,কউক চেয়ারম্যান, কক্সবাজারের সিনিয়র সাংবাদিক,স্থানীয় বিভিন্ন দৈনিকের সম্পাদক, বিভিন্ন পত্রিকার সাংবাদিক ও দৈনিক সমুদ্রকন্ঠের পাঠক ,হকারও শুভাকাঙ্খীরা।

শোভাযাত্রা শেষে কক্সবাজার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সমুদ্রকন্ঠের সম্পাদক মঈনুল হাসানচৌধুরী পলাশের সভাপতিত্বে ও দৈনিক সমুদ্রকন্ঠের বার্তা সম্পাদক ও দৈনিক সময়ের আলোর কক্সবাজার প্রতিনিধি আমিরুল ইসলাম মো: রাশেদের সঞ্চালনায়
আলোচনায় সভায় অতিথির বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা জাসদের সভাপতি নঈমুল হক চৌধুরী টুটুল,কক্সবাজার চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি আবু মোর্শেদ চৌধুরী খোকা, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক সৈকতের সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান মাবু, সিনিয়র সাংবাদিক ফজলুল কাদের চৌধুরী ,দ্যা ডেইলি স্টরের স্টাফ রিপোর্টার মুহাম্মদ আলী জিন্নাত,পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর নাছিমা আক্তার বুকুল , শাহেনা আক্তার পাখি, বাংলাভিশনের স্টাফ রিপোর্টার এম.আর খোকন, দৈনিক আমাদের কক্সবাজার পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও আরটিভির জেলা প্রতিনিধি সাইফুর রহিম শাহীনও কক্সবাজার রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি রাসেল চৌধুরী প্রমুখ।এতে আরও বক্তব্য রাখেন,দৈনিক যায়যায়দিনের কক্সবাজার প্রতিনিধি জাবেদ আবেদিন শাহীন, দৈনিক সাঙ্গুর ইমাম খাইর,ডেইলি সানের কক্সবাজার প্রতিনিধি ওয়াহিদুর রহমান রুবেল,দৈনিক মেহেদীর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ইকবাল বাহার চৌধুরী।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন,কক্সবাজার ইন্টারন্যাল ইউনিভার্সির সহকারি রেজিস্টার কুতুব উদ্দীন, দৈনিক সমুদ্রকন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার উখিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কমরু উদ্দীন মুকুল,কুতুবদিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদ শাহাদাত হোসাইন,পৌর প্রিপ্যারাটরি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র ইংরেজি শিক্ষক তাহমিদ,দৈনিক সমুদ্রকন্ঠের সহ সম্পাদক স্বপন কান্তি দে, পরিচালনা সম্পাদক মঈন উদ্দিন, সকালের সময়ের কক্সবাজার প্রতিনিধি শাহেদ ফেদৌস হিরু, আমার সময়ের দিদারুল আলম,আমার বার্তার জসিম উদ্দীন,দৈনিক সমুদ্রকন্ঠের চীফ রিপোর্টার জসিম উদ্দীন, দৈনিক সমুদ্রকন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার শাহী কামরান,আমিনুল ইসলাম আমিন,দৈনিক হিমড়ডির সিনিয়ন সাংবাদিক তারেকুল ইসলাম, রিদুয়ানুল হক,সাংবাদিক মোঃ নাজিম উদ্দীন,সাংবাদিক মাসেদুর রহমান, আরমান,আমিনুল ইসলাম, জেলা হকার সমিতির নেতা শহীদুল ইসলাম, আমজাদ,হকার জসিম,যুবলীগ নেতা জামশেদ আলম জনি,যুবদল নেতা দোলন ধর,সহ স্থানীয় ও বিভিন্ন জাতীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে কক্সবাজার জেলার সিনিয়র সাংবাদিক ও পত্রিকায় কর্মরত সাংবাদিক, হকার এবং বিভিন্ন শ্রেণির পাঠক উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মতামত: