কক্সবাজার, রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

আদালতে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন রামু থানার ওসি আবুল খায়ের

কক্সবাজার-মেজর সিনহা নিহতের ঘটনায় শিপ্রা দেবনাথের বিরুদ্ধে পুলিশের দায়ের করা মামলায় দুটি জব্দকৃত তালিকা তৈরি এবং একটির সঙ্গে অপরটির মিল না থাকার বিষয়ে আদালতের কাছে নিজের ভুল স্বীকার করে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন রামু থানার ওসি মো. আবুল খায়ের।

বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. দেলোয়ার হোছাইনের আদালতে উপস্থিত হয়ে তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সিনিয়র আইনজীবি এম এ বারী এই তথ্য জানিয়েছেন।

সিনহা ভ্রমণবিষয়ক ডকুমেন্টারি বানানোর জন্য কক্সবাজারের হিমছড়ি এলাকায় গিয়েছিলেন। ওই কাজে তার সঙ্গে ছিলেন স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া বিভাগের শিক্ষার্থী সিফাত ও শিপ্রা। সিনহা নিহত হওয়ার পর পুলিশ সিফাত ও শিপ্রার বিরুদ্ধে মামলা করে। এছাড়া পুলিশ একটি সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) করে।

শিপ্রার আইনজীবী মাহবুবুল আলম টিপু বলেন, “মামলার পর আবার জিডি করার প্রশ্ন আসে না। আবার পুলিশ ওই মামলায় শিপ্রার মালপত্রের একটি তালিকা করার পাশাপাশি জিডি-মূলে আরও একটি তালিকা করে। দুটি তালিকায় আবার গরমিল দেখা যায়।

“রামু থানার ওসিকে এর কারণ জানাতে আদেশ দিয়েছিল আদালত। রামু থানার বর্তমান ওসি আবুল খায়ের আদালতে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন। একই সঙ্গে লিখিত শোকজের জবাবও জমা দেন।” সময়ের কণ্ঠস্বর

পাঠকের মতামত: