কক্সবাজার, সোমবার, ১৬ মে ২০২২

আমন আবাদে ব্যস্ত উখিয়ার কৃষক

মোহাম্মদ ইব্রাহিম মোস্তফা, উখিয়া বার্তা ডটকম::

চলছে আমন ধান রোপণের ভরা মৌসুম। আমনের চারা রোপণ নিয়ে কৃষকের ব্যস্ততার শেষ নেই। মুষলধারে ঝড়ছে বর্ষার বৃষ্টি। কৃষক ধান বুনতে বুনতে দেখছেন আগামী দিনের স্বপ্ন। অনুকূল আবহাওয়ায় কৃষকরা কোমর বেঁধে এখন আমন চাষ করতে মাঠে নেমেছেন কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কৃষকরা।

অন্যান্য বছরের তুলনায় চলতি বছরে অধিক পরিমানে বর্ষার অফুরন্ত পানিতে কৃষক ধান বুনতে বুনতে দেখছেন নতুন দিনের স্বপ্ন। বর্ষার পানির জন্য এবছর উখিয়া কৃষকের সেচের খরচ বাঁচিয়ে দেবে বলে জানান কৃষকরা। অন্যদিকে, গতবছরের তুলনায় শ্রমিকদের মজুরি বেড়েছে ৫০-১০০ টাকা।

রাজাপালং ধানচাষী ও ধান রোপন করা শ্রমিকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার বৃষ্টি একটু আগেই শুরু হয়েছে। আষাঢ় মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে পুরোদমে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। শ্রাবণ মাসে হাতেগোনা কয়েকটা দিন পাওয়া যাবে, যেসব দিনে বৃষ্টি হয়নি। তাই অগ্রিম বৃষ্টি পেয়ে আমন চাষে মাঠে মেনে পড়েছে কৃষকেরা। উখিয়া উপজেলায় এখন আমন চাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকেরা।

হলদিয়াপালং ইউনিয়নের ধানচাষী জসিম উদ্দিন জানান, দেড় বিঘা জমিতে ধান চাষাবাদ করেছি। এক ফোঁটা পানিও কিনতে হয়নি। এতে কৃষকদের খরচ কমেছে। তবে এবছর ধান রোপণ করা শ্রমিকদের মজুরি গতবছরের চেয়ে ৫০-১০০ টাকা বেড়েছে। গতবছর যেখানে দৈনিক একজন শ্রমিকের মজুরি ছিল ৩৫০-৪০০ টাকা, সেখানে চলতি বছরে তা বেড়ে ৪৫০-৫০০ টাকা হয়েছে। ধানের দাম বাড়ার কারনে শ্রমিকের মজুরি বেড়েছে বলে জানান তিনি।

রত্নাপালং ইউনিয়নের চাষি ওসমান জানান, অতিরিক্ত বৃষ্টির কারণে আমন চাষে তেমন সেচ খরচ লাগে না। এছাড়া সার খরচও কম। বর্ষার পানির উপর নির্ভর করে উঁচু-নিচু সকল জমিতে আমন চাষাবাদ করা হয়ে থাকে। এ বছর অগ্রিম বৃষ্টি হওয়ায় দেরি না করে আমন চাষে নেমে পড়েছেন চাষীরা।

উখিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা প্রসেনজিত তালুকদার জানান, কৃষিপ্রধান বাংলাদেশের শস্য উৎপাদন পঞ্জিকা বৃষ্টির সঙ্গে সম্পর্কিত। চলতি মৌসুমে আমন চাষাবাদ করার জন্য আষাঢ় মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে বীজতলার কাজ শুরু করেছেন উপজেলার কৃষকেরা। শ্রাবণের শুরুতেই পুরোদমে বৃষ্টিতে আমন রোপন শুরু করেছেন তারা। চলতি মাসে অতিরিক্ত বৃষ্টিতে কৃষকদের খরচ অনেক কমে যাবে বলেও জানান তিনি।
তিনি আরও জানান, চলতি বছরে উখিয়া উপজেলায় ৯ হাজার ৬৮০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত: