কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪

উখিয়া কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনার শীর্ষে সিরাজ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

প্রায় ৭ বছর কমিটি না থাকায় ঝিমিয়ে পড়েছে উখিয়া কলেজ ছাত্রলীগের রাজনীতি। তবে এরইমধ্যে উখিয়া কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী ঘোষণা দিয়ে আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন সিরাজুল মুস্তাফা । তৃণমূল থেকে শুরু করে কলেজ ছাত্র লীগের নেতাকর্মীদের মুখে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার সমর্থনে ব্যাপক সাড়া পড়েছে।

উপজেলার পালংখালী এলাকার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম তার। ত্যাগ-তিতিক্ষা ও বর্ণাঢ্য রাজনীতিক জীবনে সিরাজুল মুস্তাফা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে শিক্ষা শান্তি প্রগতি- মূলনীতির পতাকা তলে দিপ্ত চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে ছাত্র রাজনীতিতে যোগ দেন। পড়ালেখার পাশাপাশি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণে ৩১ মার্চ ২০২৩ ইং সালে উখিয়া উপজেলা আহ্বায়ক কমিটি সিনিয়র সদস্য হিসেবে মনোনীত হন।

মেধাবী এই ছাত্রনেতা ২০১৫ সাল থেকে পালংখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ, ২০১৭ সাল থেকে উখিয়া কলেজ ছাত্রলীগের হয়ে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ত্যাগী ছাত্র নেতা সিরাজুল মুস্তাফা উখিয়া ছাত্রলীগের সোনালি অর্জন।

পরীক্ষিত এই নেতা উখিয়া কলেজ ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হওয়ায় তৃণমূলসহ সচেতন মহলে সাড়া পড়েছে।

উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের মিছিলে সিরাজুল মুস্তাফা

প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে সিরাজুল মুস্তাফা বলেন, উখিয়া কলেজে এমন একটি রাজনৈতিক নেতৃত্বের প্রয়োজন যার সুশিক্ষার পাশাপাশি সমৃদ্ধ রাজনৈতিক অতীত ও অভ্যাস আছে। এর পাশাপাশি আছে জেলা, উপজেলার সঙ্গে যোগাযোগ ও সমন্বয়ের দক্ষতা। তিনি তার সহজাত নেতৃত্ব দিয়ে ও নিয়মিত মনিটরিং দিয়ে কলেজের সঠিক সক্ষমতার উন্মেষ ও বিকাশ ঘটাতে পারবেন বলে প্রত্যয় বক্ত করেন।

তিনি আরও জানান, জেলা ছাত্রলীগের সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান ভাইয়ের দিকনির্দেশনায় কলেজ রাজনীতি চাঙ্গা রেখেছি। আমি উখিয়া কলেজ ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পেলে তৃণমূল থেকে কলেজের প্রতিটি ইউনিটকে সুসংগঠিত করবো, দলকে আরো বেশি শক্তিশালী করবো।

এদিকে জেলা ছাত্রলীগের একটি সূত্র বলছে, যেকোনো সময় মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে হয় নতুন কমিটি, না হয় সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা হতে পারে।

নেতাকর্মীর্ প্রত্যাশা করছেন নির্বাচন নিকটবর্তী হওয়ায়,উখিয়া কলেজ ছাত্রলীগের রাজনীতি চাঙ্গা রাখতে কলেজ ছাত্রলীগে শীঘ্রই নতুন নেতৃত্ব আসতে যাচ্ছে।

জানা যায়, সর্বশেষ ৩১ জুলাই ২০১৭ সালে ততকালীন সভাপতি সৈয়দ মোহাম্মদ নোমান ও সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোছাইন মিথুন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আওতাধীন উখিয়া কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি ১ বছরের বছরের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়। সেখানে সঈদুল আমিল টিপুকে সভাপতি, ইয়াছির ইরফানকে সহ সভাপতি, মামুনুর রশীদকে সাধারণ সম্পাদক ও মোহাম্মদ ইসহাককে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করা হয়।

ছাত্র লীগ সূত্রে জানা গেছে, পদপ্রত্যাশীদের মধ্যে যাঁদের সাংগঠনিক সক্ষমতা ভালো, রয়েছে ক্লিন ইমেজ, পরিবারের সঙ্গে জামায়াত-বিএনপির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই, অসাম্প্রদায়িক চেতনার অধিকারী তাঁরাই আগামীর নেতৃত্বে আসবেন। এ ছাড়া যাঁরা শিক্ষার্থীদের কাছে জনপ্রিয় এবং মানবিক কাজ করে আলোচনায় আসতে পেরেছেন, এমন ছাত্রনেতারা এগিয়ে থাকবেন।

কলেজ ছাত্রলীগের একাধিক নেতাকর্মীরা জানায়, উখিয়া কলেজ ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশীদের মধ্যে সাধারণ সম্পাদক পদে এগিয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সদস্য সিরাজুল মুস্তাফা।

পাঠকের মতামত: