কক্সবাজার, শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১

উখিয়ায় আওয়ামীলীগের প্রতিবাদ সভা নিয়ে উত্তেজনা

উখিয়ায় আওয়ামী ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে উপজেলা আওয়ামীলীগের আহুত প্রতিবাদ সভা নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। আজ রোববার বিকেলে উখিয়া সদরের সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ প্রতিবাদ সভার আয়োজন চলছে।

উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ও হলদিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমিনুল হক আমিন বলেন, অযোগ্য ও অদক্ষ লোকের হাতে ক্ষমতা থাকায় সাধারণ মানুষের ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করেছে। স¤প্রতি উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ও হলদিয়াপালং ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান শাহ আলমের বির্তকিত বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। যা নিয়ে আওয়ামীলীগ ও সরকারকে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে।
পালংখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি এম এ মনজুর বলেন, উক্ত বির্তকিত ইউপি চেয়ারম্যানের বক্তব্যে আওয়ামীলীগের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে তা মেনে নেয়া হবে না। ঐ ব্যক্তি দীর্ঘদিন আওয়ামীলীগ করলেও জনপ্রতিনিধি হিসেবে তার দক্ষতার ব্যাপক ঘাটতি আছে। ফলে স্হান,কাল ও পাত্র বিবেচনা না করে দল ও প্রশাসনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন এমন বক্তব্য দিয়ে থাকেন।
উখিয়া আওয়ামীলীগ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী উক্ত ইউপি চেয়ারম্যানের বির্তকিত বক্তব্যের নিন্দা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা তার এধরণের আচরণের প্রতিবাদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ঐ ইউপি চেয়ারম্যান ইতিমধ্যে দলের ক্ষতিকর অনেক কাজ করেছে। তার কারণে আওয়ামীলীগের অভ্যন্তরে কোন্দলের সৃষ্টি হয়েছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য গত সপ্তাহে উখিয়ার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডে একটি উঠান বৈঠকে বক্তব্য কালে উক্ত ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমের বির্তকিত কিছু বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। এতে তিনি বলেছিলেন, ‘শেখ হাসিনা আওয়ামীলীগের নৌকার মনোনয়ন তাকে তার ঘরে এনে দেবেন। পুলিশ সরকারের গুন্ডা, প্রয়োজনে সেই পুলিশ দিয়ে পিটিয়ে নৌকায় ভোট নেয়া হবে।’ এছাড়া তিনি আরও বেশ কিছু বক্তব্য দেন, যা দল ও সরকারের প্রশাসনের জন্য বিব্রতকর বলে মনে করছেন আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা।
এ বিষয় নিয়ে গতকাল শনিবার বিকেলে উক্ত ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম উখিয়া প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তার বিরুদ্ধে তার প্রতিপক্ষ অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে দাবী করেন। তিনি বলেন, তার বক্তব্যকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করে তার পরিবারকে হেয় করা হচ্ছে। যা তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি। উল্লেখ্য ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব শফিউল আলমের ছোট ভাই।

সুত্র: দৈনিক কক্সবাজার

পাঠকের মতামত: