কক্সবাজার, শনিবার, ৬ মার্চ ২০২১

উখিয়ায় করোনা ভাইরাসের আশংকা, স্বাস্থ্য সেবার দৃশ্যমান উন্নয়ন প্রয়োজন

উখিয়া বার্তা ডেস্ক::

রোহিঙ্গা অধ্যূষিত এলাকা হিসেবে উখিয়ার স্বাস্থ্য সেবার মান আরও উন্নত হওয়ার প্রয়োজন দাবি করে উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী বলেছেন, যেহেতু এখানে প্রায় ৮লক্ষ রোহিঙ্গার বসবাস। এসব রোহিঙ্গারা যেখানে
সেখানে মলমূত্র ত্যাগ করে পরিবেশের মারাত্বক অবনতি ঘটিয়েছে। তাই এখানে করোনা ভাইরাসের আশংকা রয়েছে।

এ আশংকাকে সামনে রেখে এনজিওদের স্বাস্থ্য
সম্মত টয়লেট, নিরাপদ খাবার পানি সংক্রান্ত ব্যাপারে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন,
এনজিও সংস্থারা হোস্ট কমিউনিটির নাম ভাঙিয়ে তাদের ইচ্ছামত কাজ করে বিদেশী দাতা সংস্থা কোটি কোটি টাকা লুটপাট করছে।

তাই বর্তমান সময়ে যেখানে হোস্ট কমিউনিটির জন্য ২৫% বরাদ্ধ রাখার কথা সে ২৫% যথাযথ কাজে ব্যবহার করে স্থানীয়দের যাতে স্বাস্থ্য সেবার মান আরও উন্নত হয় সে ব্যবস্থা করতেহবে।

গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে ওয়াশ প্রোগ্রাম প্রকল্প বাস্তবায়ন অবহিতকরন সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় উখিয়া স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মেডিক্যাল অফিসার ডা: মিজান বলেন, উখিয়ায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আশংকা আছে বটে। যেহেতু চীন
সীমান্তে মিয়ানমার, মিয়ানমার সীমান্তে বাংলাদেশ, তাই রোহিঙ্গারা নিয়মিত মিয়ানমারের সাথে আসা যাওয়া করছে বিধায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে।

তবে করোনা ভাইরাস ঠেকানোর ব্যাপারে এ পর্যন্ত উখিয়া হাসপাতালে কোন প্রকার প্রতিরোধক মূলক ঔষধপত্র আসেনি। তিনি সবাইকে নিয়মিত পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকার আহবান জানিয়ে বাড়িতে প্রবেশের সাথে সাথে সাবান দিয়ে হাত-মুখ পরিস্কার রাখার পরামর্শ দেন। বের হওয়ার সময় মুখে মাস্ক ব্যবহার করে দৈনন্দিন কাজ কর্ম করতে বলেন।

এনজিও ফোরাম আয়োজিত সেমিনারে সভাপতিত্ত্ব করেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিকারুজ্জামান চৌধুরী এনজিও ফোরামের টিম লিডার মনজুর মোর্শেদ, কনসালটেন্ট সাজেদা বেগম, গনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আল আমিন, প্রজেক্ট ম্যানেজার মোশারফ হোসেন, এনজিও সংস্থার আইডি টিম লিডার হাশেম আলী আকাশ উপস্থিত ছিলেন।

 

পাঠকের মতামত: