কক্সবাজার, শনিবার, ৬ মার্চ ২০২১

লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি

উখিয়ায় রোহিঙ্গার হাতে স্থানীয় যুব অপহৃত, মুক্তিপণ দাবি

উখিয়ায় আশ্রিত রোহিঙ্গারা দিন দিন বেপরোয় হয়ে উঠেছে। এসব রোহিঙ্গারা ইয়াবা লেনদেনের সাথে জড়িত থেকে স্থানীয়দের উৎসাহিত করছে ইয়াবা বানিজ্যে সম্পৃক্ত হওয়ার জন্য। এ রকম একটি ঘটনা ঘটেছে রত্নাপালং ইউনিয়নের ভালুকিয়া থিমছড়ি গ্রামে। মামলার বাদি কবির আহম্মদ জানান, তার বাড়ির পাশে শাহানু কোম্পানীর ইট ভাটার বেশ কয়েকজন রোহিঙ্গা দিন মজুরের কানজ করে আসছিল দীর্ঘ দিন থেকে। ইট ভাটার পাশে বাড়ি হওয়ার সুবাধে তার প্রবাসী ছেলে আলাউদ্দিন (২৫) সাথে রোহিঙ্গাদের সখ্যতা গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে আলাউদ্দিন যুক্ত হয় ইয়াবা পাচারে। ইয়াবা লেনদেন নিয়ে রোহিঙ্গা শ্রমিক জাহেদুল আলম কিছু টাকা আলাউদ্দিনের কাছ থেকে পাওনা ছিল।

গত ২ শে জানুয়ারী বুধবার রোহিঙ্গা নাগরিক জাহেদুল আলম প্রবাসী আলাউদ্দিনকে দাওয়াত দিয়ে লম্বাশিয়া আম বাগান ক্যাম্পস্থ তার বাড়িতে নিয়ে গিয়ে আটকিয়ে রাখে। সেখান থেকে গভীর রাতে অন্য একটি স্থানে আলা উদ্দিনকে
কতিপয় অস্ত্রধারীর কাছে হস্তান্ত করে বলে আলাউদ্দিনের পিতা জানান।

সে আরও জানায়, শুক্রবার সকালে মুঠোফোনে কে বা কারা ৫ (পাচ) লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি
করে, অন্যথায় আলাউদ্দিনকে খুন করা হবে মর্মে হুমকি প্রর্দশন করলে আলাউদ্দিনের বাড়িতে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা হয়।

এ ব্যাপারে আলাউদ্দিনের পিতা কবির
আহম্মদ বাদি হয়ে উখিয়া থানায় ৩জন রোহিঙ্গাকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উখিয়া থানার অফিসার সেকেন্ড অফিসার এসআই প্রভাত জানান, ইয়াবার লেনদেন নিয়ে অপহরনের ঘটনাটি ঘটেছে। অপহৃত
প্রবাসী আলাউদ্দিনকে কৌশলে উদ্ধার করার জন্য প্রচেষ্টা চলছে।

পাঠকের মতামত: