কক্সবাজার, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪

উখিয়া থেকে নিখোঁজ শিশু মহেশখালী থেকে উদ্ধার

উখিয়া থেকে নিখোঁজ হওয়া ৩ বছর বয়সী জিসান নামের শিশুকে মহেশখালী থেকে উদ্ধার করেছে তার পরিবার। ৩১ জানুয়ারী উখিয়ার কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতাল থেকে শিশুটি নিখোঁজ হয়।

শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মহেশখালীর উত্তর নলবিলা এলাকার একটি পরিবার থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। নলবিলার সে পরিবারটি জানায়, বুধবারে তাদের পূর্ব পরিচিত উখিয়ার এক ব্যক্তি শিশুটির বাবা নেই, মা মারা গেছে বলে কাউকে দত্তক দিতে চাইলে নিজেদের ছেলে সন্তান না থাকায় মানবিক কারণে শিশুটির ভরনপোষণের উদ্দেশ্যে ওই পরিবার শিশুটিকে দত্তক নেয়। শুক্রবার শিশুটির পরিবার মহেশখালী এসে শিশুটিকে শনাক্ত করলে এবং শিশুটি যে তাদের সে বিষয়ে বেশ কিছু প্রমাণাদি স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্য ইসমত আরা কে দেখালে তার উপস্থিতিতে শিশুটিকে তার পরিবারের হাতে তুলে দেয়া হয়। এই বিষয়ে শিশুটির মা দাবি করা মহিলা জানান, “মঙ্গলবার এসএসএফ হাসপাতাল থেকে তার শিশুটিকে কে বা কারা নিয়ে যায়। এই বিষয়ে তিনি উখিয়া থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন। শুক্রবার মহেশখালীতে এসে একটি পরিবারে সুস্থ অবস্থায় তার সন্তানকে তিনি ফেরত পেয়েছেন।” শিশুটি যে মহেশখালীতে রয়েছে তা কিভাবে নিশ্চিত হলেন জানতে চাইলে তিনি জানান, “একটি মোবাইল থেকে শিশুটি এখানে রয়েছে বলে জানানো হয়।”

তবে অনুসন্ধানে জানা যায় মহেশখালীর যে পরিবারে জিসান নামের ওই শিশুটিকে অনাথ অসহায় বলে যে ব্যক্তি দত্তক দিয়েছিলো সেই ফোন করে ওই পরিবারের কাছে পরে টাকা দাবী করে আসছিলো। মানবিক কারণে দত্তক নেয়া পরিবার টাকা না দিলে ওই ব্যক্তি শিশুটির পরিবারকে শিশুটির সন্ধান জানিয়ে দেয়। সে সূত্র ধরে শিশুটির পরিবার মহেশখালী থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে। শিশুটিকে তার পরিবারের হস্তান্তর করা হলেও ওই ব্যক্তির পরিচয় জানা যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পকে টার্গেট করে একটি চক্র শিশু পাচারে জড়িত রয়েছে। উদ্ধার হওয়া শিশুর পরিবার রেজিস্টার্ড রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা।

পাঠকের মতামত: