কক্সবাজার, শুক্রবার, ৫ মার্চ ২০২১

এক বছরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

করোনায় গতি হারিয়েছে শিক্ষার্থীদের স্বাভাবিক জীবন। হতাশা, বেকারত্বসহ নানা চাপে আছেন অনেকে। এ অবস্থায় কেউ বেছে নিচ্ছেন আত্মহননের পথ। গেলো বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভয়ংকর এই পথে হেঁটেছেন ১০ শিক্ষার্থী।

বিশ্ববিদ্যালয় মানেই যেন সবুজে-শ্যামলে টগবগে তারুণ্যে ভর করে মেধা-মননের মেলবন্ধন। আর তাতে প্রকৃতির গানে সুর মিলিয়ে বেড়ে ওটা হাজারো শিক্ষার্থী যেন একেকজন আশাসঞ্চারী।

যদিও মহামারীর ছোবল পাল্টে দিয়েছে হিসাব-নিকাশ। আশার সুর হতাশায় হয়েছে বেসুর। ক্যাম্পাস বন্ধ দশ মাস। হলও বন্ধ থাকায়, প্রাণজাগানিয়া শিক্ষার্থীরা ফিরে গেছেন বাড়িতে। দীর্ঘসময় বাড়িতে থেকে কেউ কেউ মুখোমুখি বেকারত্ব-দারিদ্র্যের। কেউবা প্রেমে ব্যর্থ, কারো পরিবার জোর করে করছে বিয়ের আয়োজন। সব মিলে মানসিক চাপ সইতে না পেরে, গেলো বছর আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০ শিক্ষার্থী। এর আগের ১৪ বছরে এই সংখ্যা ২৯।

ছাত্র নির্দেশনা ও পরামর্শ বিভাগ বলছে, মহামারি সময়ে চাপ সামাল দিতে প্রায় চারশ শিক্ষার্থী নিয়েছেন মানসিক সেবা।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জানিয়েছে, অনলাইনেও শিক্ষার্থীদের কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। দুঃসময় কাটাতে পরিবার-বন্ধু-সহপাঠীদের পরস্পরের প্রতি আরও সহনশীল ও সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাব বাড়ানোরও পরামর্শ কর্তৃপক্ষের।

আশ্বাস দেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান কার্যক্রমে আরও গতি আনার।

পাঠকের মতামত: