কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২

এবার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলার অনুশীলন রাশিয়ার

ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যেই পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলার অনুশীলনের দাবি করেছে রাশিয়া। বার্তা সংস্থা এএফপি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রাশিয়ার কালিনিনগ্রাদের পশ্চিমাঞ্চলীয় ছিটমহলে বুধবার এই অনুশীলন করা হয় বলে জানিয়েছে মস্কো।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য পোল্যান্ড এবং লিথুয়ানিয়ার মধ্যে অবস্থিত বাল্টিক সাগরের ছিটমহলে বুধবার রাশিয়া পারমাণবিক সক্ষম ইস্কান্দার মোবাইল ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থায় সিমুলেটেড ‘ইলেক্ট্রনিক লঞ্চ’ অনুশীলন করেছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শত্রুপক্ষের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা, বিমানঘাঁটি, সুরক্ষিত অবকাঠামো, সামরিক সরঞ্জাম এবং কমান্ড পোস্টের আদলে ‘লক্ষ্যবস্তু’ নির্ধারণ করে সেখানে একক এবং একাধিক হামলার অনুশীলন করা হয়েছে।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বিবৃতিতে আরও জানায়, ‘ইলেক্ট্রনিক লঞ্চ’ অনুশীলনের পর ‘সম্ভাব্য প্রতিশোধমূলক হামলা’ এড়াতে সেনা সদস্যরা তাদের অবস্থান পরিবর্তন করে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার বিশেষ অভিযানের ৭০তম দিনে এই অনুশীলনের ঘোষণা দিল মস্কো। ইউক্রেনে রাশিয়ার বিশেষ অভিযানে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইউরোপের সবচেয়ে বেশি শরণার্থী সংকট দেখা দিয়েছে। হাজার হাজার মানুষ নিহত এবং ১৩ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ অভিযান ঘোষণা করে সৈন্য পাঠানোর পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন রাশিয়ার কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্র মোতায়েনের প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়েছিলেন। ২০ এপ্রিল সারমাত নামের পরমাণু বোমা বহনে সক্ষম আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালায় রাশিয়া। এই ক্ষেপণাস্ত্র হাজার হাজার মাইল দূর থেকে যুক্তরাষ্ট্র কিংবা ইউরোপে আঘাত হানতে সক্ষম বলে দাবি করেছে রাশিয়া।

পাঠকের মতামত: