কক্সবাজার, সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০

কওমী ওলামা ও তৌহিদী জনতার ফ্রান্স বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল কক্সবাজার

এম.কলিম উল্লাহ::

ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এর প্রতি ধৃষ্টতাপূর্ণ ব্যঙ্গচিত্র তৈরী ও প্রদর্শনের প্রতিবাদে কওমী মাদ্রাসা ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভে উত্তাল কক্সবাজার।

৫ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) দুপুর ২টায় কক্সবাজার শহরের খুরুশকুল রাস্তার মোড় থেকে শুরু হয়ে পৌর শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে কোর্ট বিল্ডিং সংলগ্ন পাবলিক হলে গিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়।

ফ্রান্স বিরুধী বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন,
মাওলানা মুসলিম সাহেব, মাওলানা ক্বারী জহিরুল হক সাহেব, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম সাহেব, মাওলানা হাফেজ সুলাইমান ক্বাসেমী সাহেব, মাওলানা হাফেজ নুরুল আমিন সাহেব, মাওলানা হারুন সাহেব, মাওলানা মোহছেন শরীফ সাহেব, মাওলানা এমদাদুল্লাহ সাহেব, মাওলানা শামসুল হক সাহেব,মাওলানা আতাউল করিম সাহেব, মাওলানা এমদাদুল্লাহ সাহেব, মাওলানা ক্বারী আজিজুর রহমান সাহেব,মাওলানা ক্বারি আতাউল্লাহ সাহেব, মাওলানা শোয়াইব সাহেব, মুহাম্মদ আতাউর রহমান বুলবুল, মাওলানা নুরুল হাকিম সাহেব, হাফেজ মাওলানা আজিজুর রহমান সাহেব, মুহাম্মদ ওসমান সওদাগর,আলহাজ্ব সাঈদুর রহমান, মুহাম্মদ জমিলুদ্দীন, আলহাজ্ব সিরাজ সাহেব, মুহাম্মদ মুখলেছুর রহমান।

সমাবেশে কক্সবাজার জেলার সকল উপজেলার কওমি মাদ্রাসার পরিচালক, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সর্বস্তরের তৌহিদী জনতা ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে ফ্রান্সের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে কওমী মাদ্রাসা ঐক্য পরিষদের নেতারা বলেন, যে মাসে প্রিয় হাবিবের আগমনে সারা বিশ্ব আনন্দে মাতোয়ারা, ঠিক সে সময়ে ফ্রান্স সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় মহানবীর প্রতি বিদ্বেষ প্রকাশ সম্পূর্ণ পরিকল্পিত। তারা মুসলিম উম্মাহর হৃদয়ে আঘাত করেছে। প্রকৃতপক্ষে রাসুলের প্রতি বিদ্বেষপূর্ণ আচরণ ইসলাম বিদ্বেষী বৈশ্বিক ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছু নয়। ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় মহানবী (সা.) কে অবমাননায় বিশ্ব-মুসলিম চরমভাবে ব্যথিত ও ক্ষুব্ধ।

সমাবেশে বক্তারা আরও বলেন, বিক্ষুব্ধ মুসলমানদের হৃদয়ের ক্ষত মুছতে হলে ফ্রান্সকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষমা চাইতে হবে। তা না হলে সারা দুনিয়ার মুসলমানরা রাজপথে নেমে আসবে। ইতোমধ্যেই ফ্রান্সের পণ্য বয়কট শুরু হয়েছে, এ বর্জন আরও তীব্র হবে। তারা বাংলাদেশের মুসলমান ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের ফরাসি পণ্য বর্জন করার আহ্বান করার জানান।

পাঠকের মতামত: