কক্সবাজার, শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০

কক্সবাজারে নানা আয়োজনে বিশ্ব পর্যটন দিবস পালিত

সরওয়ার আজম মানিক::

কোভিড-১৯ মহামারির ধাক্কায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত খাত হিসেবে অনিশ্চয়তার সামনে দাঁড়িয়ে কক্সবাজারে পালিত হয়েছে বিশ্ব পর্যটন দিবস।

জাতিসংঘের বিশ্ব পর্যটন সংস্থা নির্ধারণ করা ‘পর্যটন ও গ্রামীণ উন্নয়ন’ এই প্রতিপাদ্যে রোববার সকালে সৈকতের লাবণী পয়েন্টে বেলুন উড়িয়ে দিবসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

পরে জেলা প্রশাসন ও বীচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির যৌথ উদ্যোগে পর্যটন দিবসের আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মাসুদুর রহমান মোল্লা।

সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ এর কারণে বন্ধ থাকা পর্যটন কেন্দ্রগুলো আস্তে আস্তে খুলতে শুরু করেছে। যেগুলো এখনও বন্ধ রয়েছে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সাপেক্ষে সেগুলোও খুলে দেওয়া হবে। সবার প্রচেষ্টায় সবাইকে নিয়েই কক্সবাজারের পর্যটন শিল্প এগিয়ে যাবে। পর্যটন কেন্দ্রে পর্যটক ও পর্যটনের সঙ্গে জড়িত সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মেনে চলতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের বিষয়টি কঠোরভাবে তত্ত্বাবধান করছে জেলা প্রশাসন। জনগণ যাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পর্যটন কেন্দ্রে যায় সেজন্য বিভিন্নভাবে জনসচেতনতা তৈরি করার জন্য কাজ চলছে।’

পর্যটন কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপক ও বীচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য সচিব মোস্তাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন টুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. সিরাজুল মোস্তফা ও জেলা জাসদের সভাপতি নঈমুল হক চৌধুরী টুটুল।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার ট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আনোয়ার কামাল আনু, কক্সবাজার ট্যুর অপারেটর ওনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি এম. রেজাউল করিম, কিটকট মালিক সমিতির সভাপতি মাহবুবর রহমান ও হোটেল মোটেল অফিসার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কলিম উল্লাহ। পরে পর্যটকদের মাঝে করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে বিতরণ করা হয় লিফলেট।

অন্যদিকে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষ্যে ব্যতিক্রম উদ্যোগ গ্রহণ করেছে কক্সবাজার হোটেল মোটেল গেষ্ট হাউজ মালিক সমিতি।“ আজ সারাবেলা, ফুলের মেলা” এই শ্লোগানকে ধারণ করে পর্যটকদের ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। হোটেল মোটেল গেষ্ট হাউজ মালিক সমিতির এমন উদ্যোগে অভিভূত পর্যটকেরা।

সকালে হোটেল মোটেল জোনে গিয়ে দেখা যায়, হোটেল মোটেল গেষ্ট হাউজ মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ ফুল নিয়ে রাস্তার বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়েছে। শিশু থেকে আবাল বৃদ্ধা বণিতা সবার হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে রজনি গন্ধার স্টিক। ফুল পেয়ে উচ্ছ্বসিত পর্যটকেরা। অনেক পর্যটক এগিয়ে এসেই ফুল গ্রহণ করছে। সবার চোখে মুখে তখন হাসির ঝিলিক।

অভিমত প্রকাশ করতে গিয়ে ঢাকা বসুন্ধরা আবাসিক থেকে আগত পর্যটক দম্পতি আশরাফ তালুকদার ও রুমি তালুকদার বলেন, আমরা শুনেছিলাম কক্সবাজারের মানুষ মেহমানদারিতে খুবই আন্তরিক। যার প্রমাণ মিলেছে এখানে এসে। পর্যটকদের প্রতি হোটেল মোটেল ব্যবসায়ীদের এমন আথিতেয়তা সত্যিই প্রশংসনীয়। এতে করে কক্সবাজারের পর্যটন আরও অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

হোটেল মোটেল গেষ্ট হাউজ মালিক সমিতির সভাপতি আলহাজ ওমর সুলতান ও হোটেল মোটেল গেষ্ট হাউজ মালিক সমিতির সভাপতি সাধারণ সম্পাদক এবং ফেডারেশন অব কক্সবাজার ট্যুরিজম সার্ভিসেস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ’র সাধারণ সম্পাদক আলহাজ আবুল কাশেম সিকদারের নেতৃত্বে প্রায় দুই শতাধিক পর্যটককে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানা হয়।

পাঠকের মতামত: