কক্সবাজার, শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১

কক্সবাজারে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ, বাবার যাবজ্জীবন

কক্সবাজারে নিজের মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে শামশুল আলম নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

বুধবার (৩ মার্চ) কক্সবাজারের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জেবুন্নাহার আয়শা এই আদেশ দিয়েছেন।

দণ্ডিত শামশুল আলম (৪৫) রামু উপজেলার রশিদ নগর ইউনিয়নের ধলিরছড়া মুরাপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে। রায়ে প্রদানকালে আসামি কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

‌‌আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ২৮ জুন আসামির নিজ ঘরে স্ত্রী না থাকার সুযোগে ওইদিন রাত সাড়ে ১১ টায় নিজের মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন শামশুল। পরবর্তীতে ১৪ বছরের ওই কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়।

এই ঘটনায় ২০১৮ সালের ৬ জুলাই ভুক্তভোগীর মা রাজিয়া বেগম বাদি হয়ে স্বামী শামশুল আলমের বিরুদ্ধে রামু থানায় মামলা দায়ের করেন। পরবর্তী ২০১৯ সালের ১৪ মে এ মামলার অভিযোগ গঠন হয়। মামলায় ৯ জনের স্বাক্ষ্যগ্রহণ করে আদালত।

ট্রাইব্যুনালে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সৈয়দ মো. রেজাউর রহমান রেজা বলেন, রাষ্ট্রপক্ষ মোট ৯ জন সাক্ষীকে আদালতে উপস্থাপন করে। এতে সন্দেহাতীতভাবে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় আদালত এই রায় দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে ভিকটিমের পক্ষে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে পারায় রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট। একই সাথে এ রায়ে ভিকটিমও সন্তুষ্ট।

পাঠকের মতামত: