কক্সবাজার, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪

টেকনাফে হত্যার দায়ে বাবা-মাসহ ছেলের যাবজ্জীবন

কক্সবাজারের টেকনাফের একটি হত্যা মামলায় এক দম্পতি ও তাদের ছেলের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড হয়েছে।

বুধবার কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (পঞ্চম আদালত) নিশাত সুলতানা এ রায় ঘোষণা করেন বলে জানান জেলার পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফরিদুল আলম।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের উত্তর শিলখালীর মো. মকবুলের ছেলে মো. মঞ্জুর ওরফে কল মঞ্জুর, তার স্ত্রী আমিনা খাতুন এবং ছেলে মো. ফোরকান।

রায় ঘোষণার সময় মঞ্জুর ও আমিনা খাতুন আদালতে উপস্থিত থাকলেও ফোরকান পলাতক রয়েছেন বলে জানান পিপি ফরিদুল।

মামলার নথির বরাতে ফরিদুল আলম বলেন, ২০১৯ সালের ২৭ অগাস্ট সন্ধ্যায় টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের উত্তর শিলখালী এলাকায় নিজের বসত ভিটায় মুরগির ঘর দেখাশোনা করছিলেন আব্দুল করিম। এ সময় পূর্ব-পরিকল্পিতভাবে আসামিরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে।

ফরিদুল জানান, পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে পাঠান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরদিন সকালে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুল করিম মারা যান।

রাষ্ট্রপক্ষের এ আইনজীবী জানান, ওই বছরের ২৯ অগাস্ট নিহতের স্ত্রী খুরশিদা বেগম বাদী হয়ে মো. ফোরকান, তার বাবা মো. মঞ্জুর ওরফে কল ও মা আমিনা খাতুনকে আসামি করে টেকনাফ থানায় মামলা করেন। ২০২১ সালের ১৮ জানুয়ারি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতে অভিযোগপত্র দেন। ওই বছরের ১৭ অক্টোবর বিচার শুরু হয়।

ফরিদুল আরও জানান, প্রত্যেককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ এক লাখ টাকা করে জরিমানা দিতে হবে, যা অনাদায়ে তাদের আরও এক বছর করে কারাভোগ করতে হবে।

পাঠকের মতামত: