কক্সবাজার, শনিবার, ৬ মার্চ ২০২১

কক্সবাজারে ৮৭ কোটি টাকার ৫টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্ধোধন

কক্সবাজারের ২৯টি গুরুত্বপূর্ণ সড়কের টেকসই নির্মাণকাজ (রিইনফোর্সড কংক্রিট- আরসিসি) ঢালাইয়ের কাজ শুরু হয়েছে।

সরকার এবং বিশ্ব ব্যাংকের আর্থিক সহযোগিতায় মিউনিসিপ্যাল গভর্নেন্স অ্যান্ড সার্ভিসেস প্রজেক্ট (এমজিএসপি) প্রকল্পের আওতায় এ কাজ বাস্তবায়ন হবে। এসব প্রকল্পের প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৮৬ কোটি ৬৮ লাখ ১৮ হাজার ৮৪৬ টাকা।

এ উপলক্ষে রবিবার বদরমোকাম মসজিদের সামনে পৌরসভা আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজারের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক (উপ-সচিব) মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন।

এ ছাড়া এলজিইডির উপ-প্রকল্প পরিচালক মনজুর আলী, কক্সবাজার পৌরসভার প্যানেল মেয়র মাহবুবুর রহমান চৌধুরী ও হেলাল উদ্দিন কবির বক্তব্য দেন। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আদিবুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) বাবুল চন্দ্র বণিক, পৌরসভার প্যানেল মেয়র-৩ শাহেনা আক্তার পাখি, কাউন্সিলর আক্তার কামাল আজাদ, মিজানুর রহমান, দিদারুল ইসলাম রুবেল, সাহাব উদ্দিন সিকদার, ওমর ছিদ্দিক লালু, রাজ বিহারী দাশ, সালাউদ্দিন সেতু, নুর মোহাম্মদ, কাজী মোরশেদ আহাম্মদ বাবু, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর ইয়াছমিন আক্তার, জাহেদা আক্তার, পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী নুরুল আলম, সহকারী প্রকৌশলী সিরাজুল কালাম বাবুল, ইঞ্জিনিয়ার টিটন দাশ, প্রশাসনিক কর্মকর্তা খোরশেদ আলমসহ সংশ্লিষ্ট ঠিকাদাররা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে উন্নয়ন কাজগুলো আগামী ৪ থেকে ৫ মাসের মধ্যে শেষ করতে ঠিকাদারদের নির্দেশ দিয়েছেন মেয়র মুজিব। তিনি উন্নয়নকাজ চলাকালীন স্ব স্ব এলাকা দিয়ে যাতায়াতকারী পৌর নাগরিক ও পর্যটকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে বদলে যাবে কক্সবাজার উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘কাজে কোনো ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া গেলে অভিযুক্ত ঠিকাদারকে কালো তালিকাভুক্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

অনুষ্ঠানে মেয়র মুজিবুর রহমান জানান, প্যাকেজ-১ এর অধিনে কক্সবাজার এয়ারপোর্ট গেইট থেকে টুইট্টা পাড়া পর্যন্ত ১৭ কোটি ৮৩ লাখ ৬৫ হাজার ৭৩৯.০০ টাকা ব্যয়ে ৩ হাজার ৪৪১ মিটার দৈর্ঘ্য সড়কের আরসিসিকরণ, ড্রেন, ফুটপাত ও স্ট্রীট লাইট স্থাপন কাজ করা হবে। এতে উপ-সড়ক হিসেবে লিংক-১: মেয়র হাউজ রোড, লিংক-২: (বিআইডবিøউটি) জেটি রোড, লিংক-৩: নতুন বাহারছড়া রোড, লিংক-৪ : মধ্যম নুনিয়ারছড়া জামে মসজিদ রোড, লিংক-৫ : কেজি স্কুল রোডও রয়েছে।

প্যাকেজ-২ এর অধিনে শহীদ সরণী রোড (মুক্তিযোদ্ধা একেএম মোজাম্মেল গেইট থেকে জাম্বুর মোড় পর্যন্ত) ১৬ কোটি ৩৯ হাজার ৪৫৯.০০ টাকা ব্যয়ে ২ হাজার ৩৮০ মিটার দৈর্ঘ্য সড়কের আরসিসিকরণ, ড্রেন, ফুটপাত ও স্ট্রীট লাইট স্থাপন কাজ করা হবে।

এতে উপ-সড়ক হিসেবে লিংক-১: সালাম মিয়া রোড, লিংক-২: বাহারছড়া গোল চত্বর রোড, লিংক-৩: আরআরআরসি রোড, লিংক-৪: সাব রেজিস্টার অফিস রোডও রয়েছে।

প্যাকেজ-৩ এর অধিনে বইল্যা পাড়া থেকে শহীদ সরণী রোড হয়ে গোলদিঘীর পাড় পর্যন্ত ১৯ কোটি ২০ লাখ ৯৬ হাজার ৯২৬.০০ টাকা ব্যয়ে ৩ হাজার ৮৫৪ মিটার দৈর্ঘ্য সড়কের আরসিসিকরণ, ড্রেন, ফুটপাত ও স্ট্রীট লাইট স্থাপন কাজ করা হবে।

এতে উপ-সড়ক হিসেবে লিংক-১: কক্স মার্কেট রোড, লিংক-২: শংকর মঠ মিশন রোড, লিংক-৩: সুইপার কলোনী রোড, লিংক-৪: কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ রোড হতে খানেকা রোড, লিংক-৫: মোহাজের পাড়া রোড, লিংক-৬: জেলা পরিষদ রোড, লিংক-৭: বিকে পাল রোড।

প্যাকেজ-৪ এর অধিনে জেলেপার্ক মাঠ থেকে বিমান বাহিনীর গেইট এবং বায়তুল রিদুয়ান জামে মসজিদ থেকে শুটকী মহাল পর্যন্ত ১৭ কোটি ৪ লাখ ৫১ হাজার ১২ টাকা ব্যয়ে ৩ হাজার ৩১০ মিটার দৈর্ঘ্য সড়কের আরসিসিকরণ, ড্রেন, ফুটপাত ও স্ট্রীট লাইট স্থাপন কাজ করা হবে। এতে উপ-সড়ক হিসেবে লিংক-১: নাজিরারটেক পুরাতন বাজার রোডও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

এছাড়া প্যাকেজ-৫ এর অধিনে থানা রোড থেকে খুরুশকুল ব্রীজ লাগোয়া রোড় পর্যন্ত ১৬ কোটি ৫৮ লাখ ৬৫ হাজার ৭০৭.০০ টাকা ব্যয়ে ৩ হাজার ৪৩০ মিটার দৈর্ঘ্য সড়কের আরসিসিকরণ, ড্রেন, ফুটপাত ও স্ট্রীট লাইট স্থাপন কাজ শুরু হচ্ছে।

এই সড়কের ভেতরে উপ-সড়ক হিসেবে লিংক-১: কেন্দ্রীয় মহাশ্মশান রোড, লিংক-২: পৌর সুপার মার্কেট রোড, লিংক-৩: ফুলবাগ সড়ক, লিংক-৪: বার্মিজ স্কুল রোড, লিংক-৫: পুরাতন ম্যালেরিয়া অফিস রোড, লিংক-৬: পেশকার পাড়া রোড, লিংক-৭: টেকপাড়া রোড আরসিসিকরণ, ড্রেন, ফুটপাত ও স্ট্রীট লাইট স্থাপন কাজও সম্পন্ন করা হবে।

পাঠকের মতামত: