কক্সবাজার, সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০

কক্সবাজার থেকে বিমানে রাজশাহী গেল ইয়াবা

রাজশাহীতে প্রায় সাড়ে নয় হাজার ইয়াবাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। র‌্যাবের দাবি, ইয়াবাগুলো কক্সবাজার থেকে উড়োজাহাজে করে রাজশাহীতে নেওয়া হয়। মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার বড়বড়িয়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার ও ইয়াবাগুলো জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, কক্সবাজারের টেকনাফ থানার সৈয়দ আলম (৩৯), চারঘাট উপজেলার বড়বড়িয়া গ্রামের মোছা. চাঁন বানু (৪২) ও তাঁর মেয়ে মোছা. সম্পা খাতুন (২০)। র‌্যাবের অভিযান টের পেয়ে পালিয়ে যান একই এলাকার সিদ্দিকুর রহমান (৪৪) ও টেকনাফের আবদুল মজিদ (২৩)।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে র‌্যাবের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৫ মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে অভিযান চালিয়ে তিন জনকে আটক করে। বাড়ির মালিক সিদ্দিকুর রহমান ও টেকনাফ থেকে আসা আবদুল মজিদ বাড়ির জানালা দিয়ে পালিয়ে যান। এ সময় ওই বাড়ির ড্রেসিং টেবিলের নিচে স্কচ ট্যাপ দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় ৯ হাজার ৩১৫টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এছাড়া নগদ ২৩ হাজার টাকা, চারটি মোবাইল ফোন, পাঁচটি সিম-কার্ড ও তিনটি জাতীয় পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয়। রাজশাহী মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি দল অভিযানটি পরিচালনা করে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, এই চক্র দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার থেকে রাজশাহীতে ইয়াবা আনে। আর রাজশাহী থেকে কক্সবাজারে ফেনসিডিল নিয়ে যায়। এ ঘটনায় র‌্যাব বাদী হয়ে চারঘাট মডেল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেছে। ওই মামলায় বুধবার সকালে আটক ব্যক্তিদের গ্রেফতার দেখিয়ে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‌্যাব-৫ কোম্পানির অধিনায়ক এটিএম মাইনুল ইসলাম বলেন, গ্রেফতারকৃতরা পরস্পরের সহযোগিতায় টেকনাফ থেকে উড়োজাহাজে করে ইয়াবাগুলো এনেছিলেন। তারা যাওয়ার সময় বাসে করে রাজশাহী থেকে ফেনসিডিল নিয়ে যান।

পাঠকের মতামত: