কক্সবাজার, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

করোনায় আরও ৫১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬.৬৪ শতাংশ

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে এ ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৯০১ জন। আজ বুধবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। যেখানে গতকাল ৩৫ জনের মৃত্যু এবং ২ হাজার ৭৪ জন রোগী শনাক্তের তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এর আগে গত ২৮ আগস্ট ৬৩ দিনের মধ্যে প্রথম কোভিডে মৃত্যু ১০০-এর নিচে নামে। এর আগে সর্বশেষ ২৬ জুন এক দিনে ৭৭ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়। এরপর টানা দৈনিক মৃত্যু ১০০-এর ওপরে ছিল। এমনকি কোনো কোনো দিন মৃত্যু ২০০ ছাড়িয়ে গেছে। গত ১০ ও ৫ আগস্ট ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় আরটি–পিসিআর, জিন এক্সপার্ট ও র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন মিলিয়ে ৮০৮টি সক্রিয় ল্যাবে ২৮ হাজার ৬১৫টি নমুনা পরীক্ষা করলে ১ হাজার ৯০১টিতে করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে। সে হিসাবে রোগী শনাক্তের হার ৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

যেখানে গতকাল ৮০৬টি সক্রিয় ল্যাবে ৩১ হাজার ৭২৪টি নমুনা পরীক্ষা করলে ২ হাজার ৭৪টিতে করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে। সে হিসাবে রোগী শনাক্তের হার ৬ দশমিক ৫৪ শতাংশ।

এই সময়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে ঢাকা বিভাগে। এই বিভাগে গত এক দিনে মারা গেছেন ২০ জন কোভিড রোগী। এ ছাড়া চট্টগ্রামে ১১ জন, রাজশাহীতে ৪, খুলনায় ৫, বরিশালে ৩ জন এবং সিলেটে ৫ ও ময়মনসিংহে ৩ জন মারা গেছেন।

এক দিনে করোনায় মৃত ৫১ জনের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ৪৪ জন এবং বেসরকারি হাসপাতালে ৭ জন মারা গেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে পুরুষ ৩২ আর নারী ১৯ জন। বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৯১-১০০ বছর বয়সী ২ জন, ৮১–৯০ বছর বয়সী ৩ জন, ৭১–৮০ বছর বয়সী ৫ জন, ৬১–৭০ বছর বয়সী ১৮ জন, ৫১–৬০ বছর বয়সী ১৫ জন, ৪১–৫০ বছর বয়সী ৫ জন এবং ৩১-৪০ বছর বয়সী ২ জন ও ১১-২০ বছর বয়সী ১ জন কোভিড রোগী এই সময়ে মারা গেছেন।

এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড থেকে সেরে উঠেছেন ৩ হাজার ৮৭৩ জন রোগী। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সেরে উঠেছেন ১৪ লাখ ৯০ হাজার ৫৪১ জন। যেখানে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৩৬ হাজার ৩৪১ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ২৭ হাজার ৫৮ জন করোনা রোগীর।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে প্রথম কোভিডে আক্রান্ত রোগী শনাক্তের পর দ্রুত সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে নভেল করোনাভাইরাস। বাংলাদেশে করোনাভাইরাস প্রথম শনাক্তের খবর জানানো হয় গত বছরের ৮ মার্চ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রথম মৃত্যুর খবর জানায় ১৮ মার্চ।

পাঠকের মতামত: