কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১

ঘুমধুমে আরো ১৮৭ পরিবারের মাঝে খাদ‌্য সহায়তা প্রদাণ করেন চেয়ারম‌্যান জাহাঙ্গীর

এন এম সিকদার::

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশে ও ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েছে। এর থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকার ও প্রশাসন ব্যাবস্হা দিন রাত কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। যা চোখে পড়ার মতো, তারই ধারাবাহিকতায় দেশের সকল স্তরের প্রশাসন নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিভিন্ন জেলা উপজেলা লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে । লকডাউন ঘোষিত নাইক্ষ‌্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নে করোনা ভাইরাসে লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্থ নিম্নআয়ের হতদরিদ্রদের মাঝে দু্র্যোগ মন্ত্রনালয়ের বরাদ্দকৃত ও উপজেলা পরিষদের তত্বাবধানে ঘুমধুম ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের ১৮৭ হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে বিতরন করতে খাদ‌্য সামগ্রী ইউপি সদস‌্যদের হাতে তুলে দেন ইউপি চেয়ারম‌্যান জাহাঙ্গীর আজিজ।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) ঘুমধুম ইউনিয়নের ১ হতে ৯টি ওয়ার্ডের ইউপি সদস‌্যদের হাতে আরো ১৮৭ হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ঘরে ঘরে বিতরনের জন‌্য খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন ঘুমধুম ইউপি চেয়ারম‌্যান একেএম জাহাঙ্গীর আজিজ।উপস্থিত সকল ইউপি সদস‌্যদেরকে ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌছে দিতে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেন ইউপি চেয়ারম‌্যান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঘুমধুম ইউপি সদস‌্য,কামাল উদ্দিন, দিল মোহাম্মদ, শফিকুল ইসলাম, আনোয়ার ইসলাম সিকদার, মহিলা সদস‌্য আনোয়ারা বেগম, ফাতেমা বেগম, এ‌্যাডভোকেট তারেক আজিজ জামী, আওয়ামীলীগ নেতা জামাল উদ্দিন, সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ সিকদার,ছাত্রলীগ নেতা বিএম ইমরানসহ প্রমূখ।

এ প্রসঙ্গে ঘুমধুম ইউপি চেয়ারম‌্যান একেএম জাহাঙ্গীর আজিজ বলেন” নোবেল করোনা ভাইরাসে সারা দেশের ন‌্যায় নাইক্ষ‌্যংছড়ি উপজেলাকেও লকডাইন ঘোষনা করেন প্রশাসন ।

এরই প্রেক্ষিতে সরকারী ভাবে সীমান্ত ইউনিয়ন ঘুমধুমের বিভিন্ন এলাকার সাধারণ মানুষের মাঝে ধাপে ধাপে চাল ডালসহ বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রী পৌছে দেয়া শুরু করেছি। নিম্ন মধ্যবিত্তরা কারও কাছে হাত পাতেন না তাদের তালিখা করে এদের জন‌্যও বাড়িতে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিতে প্রত‌্যেক ওয়ার্ডের ইউপি সদস‌্যদেরকে নির্দেশ দিয়েছি”

বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের বরাদ্দকৃত উপজেলা প্রশাসনের তত্বাবধানে নিম্ন আয়ের হতদরিদ্রদের জন‌্য ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম‌্যান খাদ‌্য সামগ্রী সকল ইউপি সদস‌্যদের এ খাদ‌্য সামগ্রী তুলে দেন।

পাঠকের মতামত: