কক্সবাজার, বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০

চকরিয়ায় পাহাড় কাটা বন্ধে ইউএনও’র অভিযান

ঘড়ির কাটায় রবিবার রাত ১০টা। চারদিকে সুনসান নিরবতা। এই নিরবতাকে কাজে লাগিয়ে শুরু হয় পাহাড় কাটা। খবর পেয়ে ঘটনান্থলে উপস্থিত হন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ শামসুল তাবরীজ।

এসময় পালিয়ে যায় পাহাড়ের মাটি কাটার কাজে জড়িত শ্রমিক ও দুর্বৃত্তরা। জব্দ করা হয় মাটি পাচারের কাজে ব্যবহৃত একটি পিকআপ।
কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের বার আউলিয়া নগর এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

জানা যায়, কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের নলবিলা বিটের অধীনে বার আউলিয়ানগর এলাকায় বনবিভাগের পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি করছে স্থানীয় একদল দুর্বৃত্ত।

মাটি কাটতে কাটতে পাহাড়ের পাদদেশে একটি বাড়ি ধসে পড়ার উপক্রম হয়েছে। যেকোন মুহুর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে মাটি ধসে।
একইভাবে সোমবার সকাল ১০টায় ইউএনও সৈয়দ শামসুল তাবরীজ ও ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জ অফিসার মাজহারুল ইসলাম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। পাহাড় কেটে মাটি বিক্রয় ও পরিবহন কাজে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ প্রদান করেন ইউএনও।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, বনখেকো ও মাটি খেকোদের কোনভাবে ছাড় দেয়া হবে না। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে। বিডিপ্রতিদিন

পাঠকের মতামত: