কক্সবাজার, শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১

চকরিয়ায় মামলার সাক্ষী দেয়ায় বৃদ্ধা মাকে কুপিয়ে জখম

কক্সবাজারের চকরিয়ায় বসতঘর পোড়ানোর মামলায় সাক্ষী দেয়ায় বৃদ্ধা মা আয়েশা বেগমকে (৭৫) কুপিয়ে জখম করেছে দুই ছেলে। স্থানীয় লোকজন আহত বৃদ্ধা নারীকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের নয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত আয়েশা ওই এলাকার মৃত মাস্টার সিরাজুল হকের স্ত্রী।

আয়েশা বেগম বলেন, স্বামী মারা যাওয়ার পর তার জমির আয় থেকে আমার ভরণ-পোষণ চলে। গত বছর জমির ভাগ না দেয়ায় আমাকে পুড়িয়ে মারতে ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয় দুই ছেলে রিদুয়ানুল হক ও দিদারুল হক। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়।

ওই মামলায় তদন্ত কর্মকর্তার কাছে সাক্ষী দেয়ায় বৃহস্পতিবার সকালে আমার ঘরে ঢুকে ধারালো দা দিয়ে মাথায় কুপিয়ে ও কিলঘুষি মেরে জখম করে তারা।

এসময় লোকজন এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে।
তিনি আরো বলেন, বড় ছেলে রিদুয়ানুল এলাকায় একজন সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত। অপর ছেলে দিদারুল হক হেলথ ইন্সপেক্টর হিসেবে কর্মরত। জমির ভাগ না দেয়া ও বসতঘর পোড়ানো মামলায় সাক্ষী দেয়ায় আমার ওপর তারা সন্ত্রাসী হামলা চালায়।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, বৃদ্ধা মাকে কুপিয়ে জখমের ঘটনার ব্যাপারে কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাঠকের মতামত: