কক্সবাজার, শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০

বর্বরতা মামলা থেকে চেয়ারম্যানকে অব্যাহতি ও সুষ্ঠু তদন্তের দাবি

চকরিয়ায় হাজারো মানুষের বিক্ষোভ-মানববন্ধন

দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হওয়া কক্সবাজারের চকরিয়ার হারবাংয়ে গরু চুরির অভিযোগে মা-মেয়ের ওপর বর্বরতার ঘটনায় রুজুকৃত মামলার দায় থেকে চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলামকে অব্যাহতি দেওয়াসহ ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের দাবিতে মানবন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর বারোটা পর্যন্ত চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের হারবাং স্টেশনে চলা এই কর্মসূচীতে অংশ নেয় হাজারো নারী-পুরুষ ও আলেম-ওলেমা।

এ সময় আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মী, ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যগণ বিভিন্ন ব্যানার ও ফেস্টুন সহকারে অংশ নেন। প্রায় দুই
কিলোমিটারজুড়ে এই মানববন্ধন বিস্তৃত হওয়ায় মহাসড়কে চলাচলরত যানবাহনকে চলতে হয় ক্ষিপ্রগতিতে। হারবাংয়ের সচেতন জনতার ব্যানারে এই কর্মসূচী পালিত হয়।

এর আগে একই দাবিতে বুধবার কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনকে স্মারকলিপি দেন বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ এসোসিয়েশন চকরিয়া শাখা। এদিন কক্সবাজারে সাংবাদিক সম্মেলনও করেন তারা।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আবু মুছা, সদস্য আজিম উদ্দিন, অধ্যাপক সুলতান আহমদ, হারবাং ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি জাহেদুল ইসলাম, উপজেলা  ছাত্রলীগ নেতা নাঈম উদ্দিন, চকরিয়া-পেকুয়া ছাত্রফোরামের সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসাইন, ছাত্রনেতা রিফাত, বোরহান, নোমান, মোক্তার আহমদ প্রমুখ।

এছাড়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইলিয়াছ, সৈয়দ নূরসহ পরিষদের সকল সদস্য অংশ নেন। হুমকি-ধামকি বা টাকা দিয়ে এসব মানুষকে আনা হয়েছে কী-না এমন প্রশ্নে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে মানববন্ধনে অংশ নেওয়া কৃষক, কৃষাণীসহ বেশ কয়েকজন বলেন, ‘আমরা স্বেচ্ছায় রাস্তায় নেমেছি, নির্দোষ চেয়ারম্যানকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার দাবিতে। দোষ না করেও যদি এভাবে কেউ মামলার আসামি হয়ে যায়, তাহলে গরু চোরের উপদ্রব বেড়ে যাবে। এতে আমরা পাহারা দিয়েও পালিত পশু রক্ষা করতে পারবো না।’

পাঠকের মতামত: