কক্সবাজার, বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১

চট্টগ্রামে একদিনে ৪৮ দোকানে সোয়া পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রাদুর্ভাবে সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশও অস্থির। অনেক মানুষ ঘরবন্দি। সাময়িকভাবে কিছু মানুষ বের হচ্ছেন জীবিকার  প্রয়োজনে। আর কেউ কেউ বের হচ্ছেন শুধুই খাবার সংগ্রহ করতে। এরই মধ্যে চলে এসেছে রমজান মাস। তাতেই পোয়াবারো অবস্থা চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদেরা। তাঁরা ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন অবৈধপন্থায় টাকা উর্পাজনের।

অবৈধ পন্থায় টাকা উপার্জনের এমন একাধিক তথ্য প্রমাণ পেয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা। তাঁরা আজ দিনব্যাপী সেনা-পুলিশ সদস্যদের নিয়ে নগরীতে অভিযান পরিচালনা করেন। এই সময় ফলের আড়ত থেকে শুরু করে ঔষধের দোকান পর্যন্ত প্রায় সবখানেই অবৈধপন্থায় টাকা হাতিয়ে নেওয়ার কূটকৌশল শণাক্ত করেছেন। পরে তাদের জরিমানা করা হয়েছে। এক দিনেই ৪৮টি মামলায় জরিমানা আদায় করা হয়েছে পাঁচ লাখ ১৩ হাজার ৩০০ টাকা।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ফলের আড়তে গিয়ে দেখা গেছে, ব্যবসায়ীরা রমজান শুরুর আগে মাল্টা বিক্রি করতেন ৮০-৯০ টাকা। কিন্তু রমজান শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই দাম বাড়িয়ে দেন। সেখানে অভিযান চালিয়ে প্রতি কাটুন মাল্টার দাম ২৩৫০-২৪৫০ টাকা থেকে কমিয়ে ১৫০০-১৬০০ টাকায় বিক্রি করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়। পরে এই দরেই পাইকারীতে মাল্টা বিক্রি করেন বিক্রেতারা।

অভিযানের বিষয়ে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদুর রহমান জানিয়েছেন, নগরীর পাহাড়তলী, ডবলমুরিং, হালিশহর, আকবরশাহ, কোতোয়ালী, চকবাজার, সদরঘাট, বাকলিয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় ধারাবাহিক অভিযান চালিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ। এসব অভিযানে ফলের আড়ত, চাউলের আড়ত, কাচা বাজার, মুদি দোকান, ঔষদের দোকানে অভিযান চলেছে। অভিযানকালে ৪৮টি মামলায় সোয়া পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত: