কক্সবাজার, শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১

চট্টগ্রামে মা-মেয়ে-ছেলের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা, স্বামী গ্রেপ্তার

চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানার মোহাম্মদপুরে নিজ ঘর থেকে মা ও দুই সন্তানের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) রাতে মারা যাওয়া সুমিতা খাতুনের ফুফা সামশুল হক বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল কবির। তিনি বলেন, তিনজনের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় সুমিতা খাতুনের স্বামী সোহেল রানাকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার মোহাম্মদপুর এলাকার এসএস হাউজের সাততলা আবাসিক ভবনের চতুর্থতলার একটি ফ্ল্যাট বাসা থেকে মা সুমিতা খাতুন, মেয়ে মুন (৭) ও ছেলে সানের (৩) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ঘটনাস্থলে এসে নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) মোখলেছুর রহমান বলেছিলেন, ‘দরজা জানালা সব কিছুই ঠিকঠাক আছে। বাইরে থেকে কেউ আসারও কোন সুযোগ নেই। আমরা সিসিটিভি ফুটেজও সংগ্রহ করে পর্যালোচনা করছি। প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যাই ধরে নেয়া হচ্ছে। বাকিটা তদন্তের পর জানা যাবে। ধারণা হচ্ছে পারিবারিক কলহের কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে।’

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পুলিশ সুপার নাঈমা সুলতানা ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ধারণা হচ্ছে কন্যাসন্তানের হাতের রগ কেটে হত্যার পর অন্য শিশুকে শ্বাসসরোধে হত্যার পরই সুমিতা খাতুন আত্মহত্যা করেছে। কিন্তু একজন মা, কতটুকু অসহায় হলে এমন কাজটি করতে পারে। তবুও বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। স্বামীকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয়া হয়েছে।’

পাঠকের মতামত: