কক্সবাজার, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

চুলের যত্নে ঘরেই বানান অ্যালোভেরা শ্যাম্পু

যতদিন যাচ্ছে বাড়ছে চুলের নানান সমস্যা। নামিদামি বিউটি প্রোডাক্ট ব্যবহার করেও কোনো কাজ হচ্ছে না। এ সমস্যাটা এখন অনেকেরই হচ্ছে। সমাধানে বেছে নিতে হবে অন্য উপায়। চুলের সমস্যা মেটানোর জন্য অনেক ঘরোয়া প্রতিকার রয়েছে এবং তার মধ্যে একটি হলো অ্যালোভেরা জেল।

অ্যালোভেরা জেল প্রাকৃতিক এজেন্ট হিসেবে বিবেচিত হয়, যা ত্বক ও চুলকে ভেতর থেকে সুস্থ করে রাখে। এতে উপস্থিত পুষ্টিগুণ এবং বৈশিষ্ট্য চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। অনেকেই তাই চুলের জন্য অ্যালোভেরা শ্যাম্পু ব্যবহার করেন। তবে জানেন কি এসব বাজার চলতি অ্যালোভেরা শ্যাম্পু ব্যবহার না করে আপনি বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন এই শ্যাম্পু। এতে পয়সাও বাঁচবে আর ফলও ভালো পাবেন। আসুন জেনে নেওয়া যাক কী করে বানাবেন এই শ্যাম্পু এবং এর উপকারিতা সম্পর্কে।

তৈরি করবেন যেভাবে-
অ্যালোভেরা জেল শ্যাম্পু তৈরি করতে প্রথমেই একটি পাত্রে অ্যালোভেরার পাল্প বের করে নিতে হবে। এরপর একটি পাত্রে পানি গরম করুন। এরপর এতে অ্য়ালোভেরার পাল্প দিন। এর সঙ্গে ভিটামিন ‘ই’ ক্যাপসুল এবং জোজোবা তেল যোগ করুন এবং ভালভাবে মেশান। মিশ্রণটি ভালো করে মিশিয়ে নিন। ঠান্ডা হওয়ার পরে, এটি একটি বোতলে রাখুন এবং প্রয়োজন মতো এই শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিষ্কার করুন।

ঘরে তৈরি অ্যালোভেরা জেল শ্যাম্পুর উপকারিতা-

১. স্ক্যাল্পের চুলকানি : স্ক্যাল্পে চুলকানি বর্ষায় একটি সাধারণ সমস্যা। আবহাওয়ায় উপস্থিত আর্দ্রতা ও ময়লা মাথার ত্বকে জমে তা খুশকিতে রূপ নেয়। খুশকির কারণে ধীরে ধীরে মাথায় চুলকানি হয়। এই সমস্যা থেকে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে এই শ্যাম্পু। অ্যালোভেরার অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য চুলকানি কমাতে কাজ করে।

২. চুলের বৃদ্ধি : অ্যালোভেরা জেল পুষ্টি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পূর্ণ। একই সঙ্গে এই শ্যাম্পুতে ভিটামিন ই রয়েছে, যা চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এই শ্যাম্পু সঠিকভাবে ব্যবহার করলে চুলের দৈর্ঘ্য দ্রুত বাড়তে থাকে।

৩. চুলের জেল্লা ফেরে : অ্যালোভেরা জেল শ্যাম্পুর বিশেষত্ব হলো এটি চুলের হারানো উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে দিতে সাহায্য করে। সপ্তাহে দুবার এই হারবাল শ্যাম্পু অবশ্যই ব্যবহার করুন। ফল পাবেন।

পাঠকের মতামত: