কক্সবাজার, রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১

জামালপুরে পুত্র হত্যায় পিতার ফাঁসি

জামালপুরে শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার পাঁচ মাসের সন্তানকে আছাড়া মেরে হত্যার দায়ে বাবার ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। ঘাতক পিতা উপজেলার দুধনই গাজারি জুড়া গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে।

রোববার (২৯ নভেম্বর) জামালপুরের জেলা ও দায়রা জজ জুলফিকার আলী খাঁন এ রায় দেন বলে জানিয়েছেন জামালপুর জজ আদালতের পিপি নির্ম্মল কান্তি ভদ্র।

ফাঁসির রায়প্রাপ্ত মো. মোস্তফা (২৮) পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণ থেকে আইনজীবী নির্ম্মল কান্তি ভদ্র জানান, বকশীগঞ্জ উপজেলার নতুন টুপকারচর গ্রামের উজির আলীর মেয়ে রোজিনা বেগম (২৪) এর সাথে মোস্তফার বিয়ে হয়। তখন তারা দুইজনই ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। রোজিনা গর্ভবতী হলে তারা দুইজন নতুন টুপকারচর গ্রামে চলে আসেন।

রোজিনার দরিদ্র পিতার বাড়িতে জায়গা না থাকায় গ্রামের সোহরাব মেম্বারের ছেলে গিয়াস উদ্দীনের রান্না ঘরে এ দম্পতি বসবাস শুরু করেন। সে সময় ওই এলাকায় দিনমজুরি করে সংসার চালাতেন মোস্তফা। ইতোমধ্যে তাদের একটি ছেলে সন্তান জন্ম হয়।

২০১১ সালের ২০ মে রোজিনার কাছে মোবাইল ফোন কেনার টাকা চান মোস্তফা। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে পাঁচ মাসের ছেলে আাশিককে দুই পা ধরে ঢেঁকির সাথে আছাড় দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ওইদিনই রোজিনা বাদী হয়ে বকশীগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেন।

নয় জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত ৩০২ ধারায় মোস্তফাকে মৃত্যুদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেন বলে জানান তিনি।

পাঠকের মতামত: