কক্সবাজার, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০

টেকনাফে এবার ৫ লাখ ইয়াবা উদ্ধার, আটক ৭

গভীর রাতে প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন সংলগ্ন গভীর সাগর থেকে ৫ লাখ ইয়াবাভর্তি একটি ট্রলারসহ পাচারে জড়িত ৭জন অপরাধীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে দ্বীপে দায়িত্বরত কোস্টগার্ড।

২০ সেপ্টেম্বর (রোববার) সকালে এই অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ কোস্টগার্ড সদর দপ্তরে কর্মরত মিডিয়া কর্মকর্তা লে.কমান্ডার এম হায়াত ইবনে সিদ্দিক।

তিনি জানান,গোপন সংবাদের মাধ্যমে তথ্য জানতে পারে মিয়ানমার থেকে ট্রলার যোগে বৃহৎ একটি ইয়াবার চালান বাংলাদেশ জলসীমা অতিক্রম করছে।

গভীর রাতে টেকনাফে কর্মরত স্টেশন কমান্ডার লে. কমান্ডার আমিরুল হকের নেতৃত্বে কোস্টগার্ড সদস্যদের একটি দল সাগরের বেশ কয়েকটি পয়েন্টে অবস্থান নেয়। কিছুক্ষণ পর কোস্টগার্ড সদস্যরা দেখতে পায় মিয়ানমার জলসীমা অতিক্রম করে বাংলাদেশ জলসীমায় একটি ট্রলার প্রবেশ করছে। এরপর ট্রলাটিকে দাঁড়ানোর জন্য সংকেত দেয়।

কিন্তু ইয়াবা পাচারে জড়িত অপরাধীরা সংকেত অমান্য করে কৌশলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তৎপর কোস্টগার্ড সদস্যরা তাদের দাওয়া করে ট্রলারে থাকা ইয়াবা পাচারে জড়িত ৬ জন অপরাধীকে আটক করতে সক্ষম হয়।

এদের মধ্যে ৫ জন বাংলাদেশী নাগরিক, ১ জন রোহিঙ্গা নাগরিক। এরপর মাদক বহনে ব্যবহার হওয়া ট্রলারে তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করে ৫ লাখ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো বলেন, মিয়ানমার থেকে পাচার হয়ে আসা ইয়াবা পাচার প্রতিরোধ করার জন্য গভীর সাগর এবং উপকুলীয় এলাকায় কোস্টগার্ড সদস্যরা সদা প্রস্তুত রয়েছে।

এদিকে ইয়াবাসহ আটক মাদক পাচারকারীদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা রুজু করার জন্য টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।

পাঠকের মতামত: