কক্সবাজার, বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১

১৮ অস্ত্র, ২০০ রাউন্ড গুলি, ৫৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন ডাকাত নিহত

টেকনাফে গহীন পাহাড়ে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শীর্ষ তিন ডাকাত নিহত হয়েছে। এঘটনায় পুলিশের ৪ কর্মকর্তাসহ ৫ সদস্য আহত হয়েছে।

তথ্য সূত্রে জানা যায়,৬মে (বুধবার) ভোরে টেকনাফ উপজেলা হ্নীলা ইউনিয়নের অন্তর্গত রঙ্গীখালীর গহীন পাহাড়ে এ ঘটনা ঘটে।

এসময় ডাকাত দলের আস্তানা থেকে দেশী-বিদেশী ১৮টি অস্ত্র,২০০ রাউন্ড গুলি,৫৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ কক্সবাজার জার্নালকে জানান, গোপন সংবাদের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি হ্নীলা রঙ্গিখালী গহীন পাহাড়ী এলাকায় শীর্ষ ডাকাত দলের একটি গ্রুপ আস্তানায় অবস্থান নিয়েছে। সেই তথ্য অনুযায়ী পুলিশ অভিযানে গেলে উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে। এতে ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়। এরপর পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টাগুলি চালালে ডাকাত দলের সদস্যরা কৌশলে পালিয়ে যায়।

উভয় পক্ষের গোলাগুলি থেমে যাওয়ার পর ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ডাকাত দলের তিন সদস্যকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেল কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে মৃত ঘোষণা করে।

নিহত ডাকাতরা হচ্ছে, হ্নীলা রঙ্গীখালী এলাকার আব্দুল মজিদ প্রকাশ(ভুলাইয়া বৌদ্ধের) দুই পুত্র ছৈয়দ আলম (৩৫) ও নুরুল আলম(৪০),একই এলাকার ছব্বির আহাম্মদের পুত্র আব্দু মোনাফ(২০)।

এদিকে ডাকাতদের আস্তানা তল্লাশী করে পুলিশ সদস্যরা দেশী-বিদেশী ১৮ টি অস্ত্র,২০০ রাউন্ড গুলি,৫৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।
ওসি প্রদীপ আরো বলেন গহীন পাহাড়ে লুকিয়ে থাকা শীর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাত আবদুল হাকিম, জকিরসহ ডাকাত দলের সদস্যদের নির্মুল করার জন্য পুলিশ এই সাঁড়াশী অভিযান অব্যাহত থাতবে।

পাঠকের মতামত: