কক্সবাজার, বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২০

টেকনাফে ১ লাখ মিটার কারেন্ট জাল ও পাঁচটি নৌকা জব্দ, আটক ২৫

টেকনাফ প্রতিনিদি::

সরকার ঘোষিত বঙ্গোপসাগরে টানা ৬৫দিন মৎস্য শিকার ও ক্রাস্টাসিয়ান্স (২০ মে ২৩ জুলাই পর্যন্ত) মাছ ধরা নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে।

সরকারি কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে টেকনাফের বঙ্গোপসাগরে অভিযান চালিয়ে ৩০লাখ টাকার মূল্যমানে এক লাখ মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল, ৫টি নৌকা জব্দ করেছে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড সদস্যরা।

এ সময় ২৫জন মাঝি-মাল্লাকে আটক করা হয়েছে।আটক মাঝি-মাল্লাদের বাড়ি টেকনাফের বিভিন্ন গ্রামে বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

শুক্রবার দুপুরে সাড়ে ১২ টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফ উপকূলে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হয়েছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কোস্টগার্ড সেন্টমার্টিন স্টেশনের লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মো রেদোয়ান উল ইসলাম।

তিনি বলেন, সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বঙ্গোপসাগরে মাছ শিকার করার অপরাধে পাঁচটি নৌকা থেকে এক লাখ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল ও নৌকা জব্দ করা হয়েছে এবং নৌকায় থাকা ২৫জন মাঝি-মাল্লাকে আটক করা হয় এবং নৌকায় থাকা ৫মণ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ গবীর ও দুস্থদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে।

আটক মাঝি-মাল্লা ও পাঁচটি নৌকা উপজেলা মৎস্য বিভাগে হস্তান্তর করা প্রক্রিয়া চলছে।জব্দ করা জালের আনুমানিক বাজারমূল্য ৩০লাখ টাকা।

পরে বিকেল পাঁচটার দিকে সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ড স্টেশনের সামনে জব্দ করা এক লাখ মিটার জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ইউপি সদস্য হাবিব খান, আব্দুর রব , সেন্টমার্টিন বোট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আলম প্রমূখ।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে টেকনাফ উপজেলা জ্যৈষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন বলেন, সাগরের মাছ ধরা থেকে বিরত থাকার জন্য শুরু থেকেই এলাকায় এলাকায় মাইকিং ও জেলেদের সঙ্গে বৈঠক করা হচ্ছে।

এরপর নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকার করার অপরাধে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাঠকের মতামত: