কক্সবাজার, সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে দুই শতাধিক পর্যটক সাগরে আটকা

আব্দুস সালাম, টেকনাফ::

কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন-টেকনাফ নৌ-রুটে দুই শতাধিক পর্যটকবাহী জাহাজ ‘এসটি শহীদ সালাম’ ইঞ্জিন বিকল হয়ে বঙ্গোপসাগরে আটকা পড়েছে। আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে জাহাজটি ২২৯ জন পর্যটক নিয়ে টেকনাফের দমদমিয়া বিআইডব্লিটিএ বন্দর থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশে যাত্রা করে। বেলা সাড়ে ৩টার দিকে সেন্টমার্টিন জেটিঘাট থেকে ২০৫ জন পর্যটক নিয়ে ফেরার পথে ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। জাহাজটি সন্ধ্যা ৬টায় টেকনাফের দমদমিয়া ঘাটে পৌঁছানোর কথা ছিল।

জাহাজটি ওইস্থানে প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে আটকে রয়েছে। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে স্পিডবোট ও ট্রলারে করে পর্যটকদের সেন্টমার্টিনে ফেরত আনা হলেও জাহাজটি এখনো ওই এলাকায় আটকে রয়েছে।

এ তথ্যটি সন্ধ্যায় নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।

সেন্টমার্টিন ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, ওই জাহাজটি বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে দুই শতাধিক পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিন জেটি থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার ১৫ মিনিট পরেই ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে।

পরে স্থানীয় লোকজন সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে স্পিডবোট ও ট্রলারে করে পর্যটকদের উদ্ধার করে সেন্টমার্টিন নিয়ে আসেন।
ওই জাহাজে থাকা রাজশাহীর একজন পর্যটক বলেন, সেন্টমার্টিন জেটি থেকে ছেড়ে আসা কিছুক্ষণ পরে জাহাজটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে জাহাজের নাবিকেরা ইঞ্জিন মেরামতে ব্যর্থ হয়। এসময় জাহাজের অনেক নারী ও শিশু পর্যটকেরা ভয়ে কান্নাকাটিও করেন।

জাহাজটিতে দুই শতাধিক পর্যটক ছিল।
এ বিষয়ে জানতে ‘ এস টি শহীদ সালাম জাহাজের’ টেকনাফের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ করিম বলেন, আজ সকালে চলতি মৌসুমের শুরুতেই ২২৯ পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিন উদ্দেশ্য রওনা হয়। কিছু যাত্রী রাত্রি যাপনের জন্য সেন্টমার্টিনের অবস্থান করে। বাকি প্রায় দুই শতাধিক পর্যটক নিয়ে বিকেলে ফেরার পথে জাহাজের ইঞ্জিন (গিয়ার) বিকল হয়ে পড়ে। বিকল হয়ে পড়ায় ইঞ্জিন চালুর চেষ্টা করা হচ্ছে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানিয়েছেন, জাহাজটি ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়েছে বলে খবর শুনেছি। জাহাজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। জাহাজে থাকা পর্যটকদের নিরাপদে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পাঠকের মতামত: