কক্সবাজার, রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

দফায় দফায় সংঘর্ষে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে ভীতিকর পরিস্থিতি

উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পজুড়ে এখন ভীতিকর পরিস্থিতি। সন্ত্রাসীগ্রুপগুলোর মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ-প্রাণহাণি আর মহড়ার কারণে আতঙ্কে সাধারণ রোহিঙ্গারা। তাতে অনেকেই নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে।

একের পর এক সংঘাত, সন্ত্রাসীদের অব্যাহত মহড়া। তাই ভয়-আতঙ্কে ঘর ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয়ের খোঁজে রোহিঙ্গারা।

মিয়ানমার সেনাদের বর্বরতার মুখে নিজদেশ ছেড়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েও যেন স্বস্তি নেই। এখন বর্বরতার শিকার নিজ দেশের মানুষের কাছে। গত কয়েকদিনের হামলা পাল্টা হামলার কারণে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প থেকে এমন অনেক রোহিঙ্গা পরিবারই ঘর ছেড়েছেন।

কক্সবাজারে ৩৪টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মধ্যে সবচেয়ে বড় কুতুপালং। নিবন্ধিত-অনিবন্ধিত মিলে এখানে ক্যাম্পের সংখ্যা ২২টির মতো। এসব ক্যাম্পের দখলদারিত্ব নিয়ে রোহিঙ্গাদের আনাস ও মুন্না বাহিনীর মধ্যে দফায় দফায় চলছে সংঘাত। এমন পরিস্থিতিকে পরিকল্পিত মনে করছেন স্থানীয় পর্যবেক্ষকরা।

শুধু সাধারণ রোহিঙ্গারাই নয়, আতঙ্কে আছে সেখানে নিয়োজিত দেশি-বিদেশি সংস্থাগুলোর কর্মীরাও। তবে ক্যাম্প এলাকা স্পর্শকাতর হওয়ায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রীতিমত হিমসিম খেতে হচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকেও। যদিও নিজেদের সর্বাত্মক চেষ্টার কথা বললেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জ প্রধান আনোয়ার হোসেন।

গত কয়েকদিনের সংঘর্ষ ও প্রাণহারি ঘটনায় এ পর্যন্ত মামলা হয়েছে ৫টি। আটক হয়েছে ১২ জন।

পাঠকের মতামত: