কক্সবাজার, শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১

দেশের প্রথম রূপান্তরিত নারী উপস্থাপক, কে এই তাসনুভা শিশির!

সময়ের সাথে বদলে যাচ্ছে মানুষের চিন্তা ধারা। একসময় সমাজের যে মানুষগুলোকে ভিন্ন চোখে দেখা হতো, দিন বদলের সাথে সেই মানুষগুলো এখন যোগ্যতা প্রমাণ করে জায়গা করে নিয়েছে নিজেদের। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি সংবাদ ছড়িয়ে পড়েছে যা মানুষের চিন্তাধারা পরিবর্তনের আরও একটি নির্দশন হয়ে থাকবে। দেশের প্রথম রূপান্তরিত নারী টেলিভিশনে প্রথমবারের মতো সংবাদ পাঠ করতে যাচ্ছেন। তার নাম তাসনুভা আনান শিশির।

আগামী ৮ মার্চ বৈশাখী টেলিভিশনে তিনি প্রথম সংবাদ পাঠ করবেন বলে গণমাধ্যমকে বৈশাখী টিভি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এছাড়াও এখন থেকে তিনি নিয়মিত সংবাদ পাঠ করবেন বলেও জানান কর্তৃপক্ষ।

তবে কে এই তাসনুভা আনান শিশির?

তাসনুভা আনান শিশির একাধারে একজন অভিনেত্রী, নৃত্যশিল্পী আবার মানবাধিকারকর্মী।

জন্মের পর তার নাম রাখা হয়েছিল কামাল হোসেন শিশির। তবে শারীরিক ও মানসিকভাবে নিজেকে তাসনুভা আনান শিশিরে রূপান্তরিত করেছেন। কিন্তু কামাল হোসেন নামটা পরিবর্তন করলেও শিশির নামটা তিনি পরিবর্তন করেননি। কারণ তিনি মনে করেন শিশির নামটা তার আসল পরিচয় বহন করে।

২০০৬ সাল থেকে তিনি থিয়েটারের সঙ্গে যুক্ত আছেন। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক মাস্টার্স প্রোগ্রাম জেমস পি. গ্র্যান্ট স্কুল অফ পাবলিক হেলথের প্রথম ট্রান্সজেন্ডার নারী শিক্ষার্থী তিনি।বর্তমানে বটতলার হয়ে বিভিন্ন প্রযোজনায় কাজ করছেন।

টেলিভিশনে সংবাদ করার আগে শিশির অনন্য মামুনের ‘কসাই’ সিনেমায় ডিটেকটিভ টিমের টিম অফিসার হিসেবে তিশা চরিত্রে অভিনয় করছেন। এছাড়াও সাইদ শাহরিয়ারের ‘গোল’ সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন তিনি। সেখানে ফুটবল দলের একজন কোচ হিসেবে দেখা যাবে তাকে।

জন্মগতভাবে অনেকেই নানা শারীরিক ও মানসিক সীমাবদ্ধতা নিয়ে ভূমিষ্ঠ হয়। এ কারণে কখনো কখনো পারিবারিক ও সামাজিকভাবে বঞ্চনা ও অবহেলার শিকার হতে হয় তাদের। সম্প্রতি ভোটার হিসেবে নারী বা পুরুষের পাশাপাশি হিজড়া পরিচয়েও নিবন্ধনের অধিকার লাভ করেছেন রূপান্তরকামী ও তৃতীয় লিঙ্গের মানুষেরা। এবার তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের গণমাধ্যমে কাজের সুযোগ করে দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করল বৈশাখী টেলিভিশন।

পাঠকের মতামত: