কক্সবাজার, রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

দেশের লম্বা মানুষ জিন্নাত আলীর মস্তিষ্কে টিউমার: আইসিইউতে সংকটাপন্ন

কক্সবাজারের বাসিন্দা জিন্নাত আলী বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরোসার্জারি বিভাগে চিকিৎসাধীন। তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

বাংলাদেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ জিন্নাত আলীর মস্তিষ্কে টিউমার ধরা পড়েছে। তার শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। কক্সবাজারের বাসিন্দা জিন্নাত আলী বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরোসার্জারি বিভাগে চিকিৎসাধীন। তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন নিউরোসার্জারি বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. খুরশিদ আনোয়ার।

তিনি বলেন, জিন্নাতের মস্তিষ্কে টিউমার রয়েছে। এ ছাড়া একাধিক শারীরিক সমস্যা রয়েছে। রোগীর অবস্থা ভালো নয়। তাকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি চলছে। আমরা ইতোমধ্যে আইসিইউতে যোগাযোগ করেছি।

এর আগে রোববার জিন্নাত আলীকে চমেক হাসপাতালে আনা হয়। প্রথমে তাকে হাসপাতালের নিউরোলজি বিভাগে ভর্তি করা হয়। সেখানে পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে তাকে সোমবার নিউরোসার্জারি বিভাগে স্থানান্তর করা হয়।

নিউরোসার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. নোমান খালেদ চৌধুরী বলেন, দুপুর দুইটার দিকে জিন্নাত আলীকে বিভাগে আনা হয়েছে। তিনি এতদিন নিউরোলজি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তার অবস্থা সংকটাপন্ন। আমরা তাকে পর্যবেক্ষণ করছি।

পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, জিন্নাতের শারীরিক অবস্থা খারাপের দিকে যাচ্ছে। জিন্নাত আলীর বড় ভাই ইলিয়াছ আলী বলেন, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন আমার ভাইয়ের ব্রেন টিউমার ধরা পড়েছে। সেটি অনেক বড় হয়ে গেছে। তাই জরুরিভিত্তিতে অস্ত্রোপচার প্রয়োজন। কিন্তু তার ডায়াবেটিসসহ অন্যান্য সমস্যাগুলোর কারণে অস্ত্রোপচার করা সম্ভব হচ্ছে না। বর্তমানে আমার ভাইয়ের শারীরিক অবস্থা খারাপের দিকে যাচ্ছে। সে এখন কথা বলতে পারছে না। আমরা তাকে নিয়ে চিন্তিত।

চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এসএম হুমায়ুন কবীর বলেন, জিন্নাত আলী নামে একজন রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার যথাযথ চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। ওই রোগী বর্তমানে নিউরোসার্জারি বিভাগে চিকিৎসাধীন। জন্মের পর থেকে ওই যুবক শারীরিক বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন।

কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের আমির হামজার ছেলে ৮ ফুট ৬ ইঞ্চি লম্বা জিন্নাত আলী বর্তমানে বাংলাদেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ। ২০১৮ সালের অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন জিন্নাত আলী। এরপর তাকে নিয়ে হইচই পড়ে যায়।

১৯৯৬ সালের জিন্নাত আলী জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পরিবারের দ্বিতীয় সন্তান। ১১ বছর বয়স থেকে জিন্নাত আলীর শরীরের অস্বাভাবিক উচ্চতা বৃদ্ধি শুরু হয়। সেটি একসময় বেড়ে ৮ ফুট ৬ ইঞ্চিতে গিয়ে দাঁড়ায়।

২০১৮ সালের অক্টোবরে জিন্নাত আলীকে চিকিৎসার জন্য রাজধানী ঢাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। তখন চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, জিন্নাতের মস্তিষ্কে টিউমার রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ছাড়া হরমোন সমস্যার কারণে তার উচ্চতা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

পাঠকের মতামত: