কক্সবাজার, সোমবার, ১৬ মে ২০২২

টেকনাফের নাফনদীতে আইস ও ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা আটক

কক্সবাজারের টেকনাফের নাফনদী দিয়ে মাদকের চালান নিয়ে সাঁতার কেটে আসার সময় এক রোহিঙ্গা পাচারকারীকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এসময় তার কাছ থেকে ৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা মূল্যের ১ কেজি ৬০ গ্রাম আইস ও ১০হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। আজ সোমবার ভোরে বিজিবি এ অভিযান চালায়।

টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, সোমবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ দমদমিয়া বিওপি’র দায়িত্বপূর্ণ বিআরএম-৯ থেকে আনুমানিক ৪০০ গজ উত্তর-পূর্ব দিকে ওমরখাল এলাকা দিয়ে মাদকের একটি বড় চালান মিয়ানমার হতে বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ ব্যাটালিয়নের ব্যাটালিয়ন সদর এবং দমদমিয়া বিওপি হতে দুইটি বিশেষ টহল কয়েকটি উপদলে বিভক্ত হয়ে দ্রুত বর্ণিত এলাকায় গমন করে কেওড়া বাগান ও নাফনদীতে গোপনে কৌশলগত অবস্থান গ্রহণ করে।

তিনি বলেন, কিছুক্ষণ পর বিজিবি টহলদল একজন চোরাকারবারীকে মিয়ানমার থেকে সাঁতরিয়ে নাফনদী পার হয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আসতে দেখে। উক্ত চোরাকারবারী শূন্য রেখা অতিক্রম করে নদীর তীরবর্তী আসলে তাৎক্ষণিকভাবে পূর্ব থেকেই কৌশলগত অবস্থানে থাকা বিজিবির টহলদল তাকে চ্যালেঞ্জ করে নদীর তীরে ধাওয়া করে আটক করতে সক্ষম হয়।

পরে বিজিবি টহলদল চোরাকারবারীর শরীর তল্লাশী করে তার কোমরে গামছা দিয়ে বাঁধা অবস্থায় ৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা মূল্যের ১ কেজি ৬০ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ আইস এবং ১০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।
তিনি আরও জানান, আটককৃত মাদক পাচারকারী হলেন ২৫নং মুচনী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বি-ব্লকের কালু মিয়ার ছেলে মো. সাকের আলী (২২)। তার বিরুদ্ধে জব্দকৃত ক্রিস্টাল মেথ আইস ও ইয়াবাসহ অবৈধভাবে মাদক বহন ও পাচারের দায়ে নিয়মিত মামলার মাধ্যমে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

পাঠকের মতামত: