কক্সবাজার, শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১

টেকনাফের পাহাড়ের পাদদেশ থেকে নিখোঁজ শিশুর হাত কাটা লাশ উদ্ধার

কক্সবাজারের টেকনাফে ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড় থেকে নিখোঁজের তিন দিন পর শাহিনা নুর (৮) নামে এক রোহিঙ্গা শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্যরা।

শুক্রবার বিকালে নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ের পাদদেশ থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত শিশু নয়াপাড়া রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের বি-ব্লকের (শেড নম্বর-১০৫২/৪ এবং এমআরসি নম্বর-০৩৩৭৩) বাসিন্দা মো. জাবেরের মেয়ে। পুলিশ সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির পর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

রোহিঙ্গারা জানায়, গত ২ মার্চ ক্যাম্প থেকে দিনের বেলার ঘর থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয় শাহিনুর নুর। পরে তাকে সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি শুরু করেন স্বজনেরা। শুক্রবার বিকেলে রোহিঙ্গাদের সহতায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ সদস্যরা। এসময় তার চেহারা বিকৃত ছিল।

নির্মমভাবে শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে। এমনকি তার বাম হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হয়েছে। লাশের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে।
আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ১৬ এর অধিনায়ক পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশ ও ক্যাম্পে দায়িত্বরত এপিবিএন পুলিশের পৃথক দল সি-ব্লকের পার্শ্ববর্তী পশ্চিমের পাহাড় থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে।

এসময় শিশুটির মুখমণ্ডল বিকৃত ও একটি হাত বিচ্ছিন্ন ছিল। এ ব্যাপারে আইনগত প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।

পাঠকের মতামত: