কক্সবাজার, শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১

পীরগঞ্জে হিন্দু পল্লীতে আগুন, গ্রেপ্তার ৪২

রংপুরের পীরগঞ্জে জেলে পল্লীতে ঘর-বাড়িতে আগুন দেওয়ার ঘটনায় ৪২ জনকে আটক করা হয়েছে। গতকাল রবিবার রাতে হিন্দু পল্লিতে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার ঘটনায় জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, র‍্যাব, বিজিবি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার রাতে উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের বড়করিমপুর কসবা হিন্দু জেলে পল্লির বাসিন্দা প্রশান্ত কুমারের ছেলে পরিতোষ কুমার (১৬) ফেসবুকের একটি পোস্টে মন্তব্যের ঘরে কাবাঘরের ব্যঙ্গ ছবি দেয়। এ ঘটনায় স্থানীয়দের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে রাত ১০ টার পর বিক্ষুব্ধ জনতা কসবা হিন্দু জেলে পল্লিতে বসবাসরতদের বাড়িঘর ভাঙচুর করে আগুন লাগিয়ে দেয়। এতে ৫০টির বেশি ঘর পুড়ে যায়। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা অর্ধ শতাধিক রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে রাত ১ টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা রাতেই ৪১ জনকে গ্রেপ্তার করে। পাশাপাশি সেখানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়। অপরদিকে ওই রাতেই এই নাশকতার প্রতিবাদে জেলা ও উপজেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিরোদা রানী রায় জানান, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে সংখ্যালঘু পরিবারের এক যুবকের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়াকে কেন্দ্র করে কসবা হিন্দু পল্লিতে সংখ্যালঘুর বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার জানান, বিনা উসকানিতে নিরীহদের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আমরা অনেককে গ্রেপ্তার করেছি।

জেলা প্রশাসক আসিব আহসান জানান, ক্ষতিগ্রস্তদের ঘরবাড়ি মেরামত করা হবে। সরকারি সকল সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

পাঠকের মতামত: