কক্সবাজার, রোববার, ৭ জুন ২০২০

বিয়ে করা বউ আসলে পুরুষ, জানলেন ২ সপ্তাহ পর!

বিয়ের জন্য একজন সুন্দরী যুবতীকে খুঁজছিলেন শেখ মোহাম্মদ মুতুম্বা (২৭)। অবশেষে পেয়েও যান তার পছন্দের মেয়েকে। কিন্তু বিয়ের দুসপ্তাহ পর জানতে পারলেন, তিনি কোনো নারীকে বিয়ে করেননি। তার বিয়ে করা বউ প্রকৃতপক্ষে একজন পুরুষ। শুনতে অবিশ্বাস্য হলেও সম্প্রতি আফ্রিকার উগান্ডায় এমন ঘটনা ঘটেছে।

উগান্ডার ডেইলি মনিটরের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, মোহাম্মদ মুতুম্বা পেশায় স্থানীয় কিয়াম্পিসি নূর মসজিদের একজন ইমাম। তার বিয়ের দুসপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কোনো শারীরিক সম্পর্ক হয়নি। এই কারণেই ইমামও জানতে পারেননি যে তার নতুন স্ত্রী আসলে পুরুষ!

তবে দুসপ্তাহ পর ইমামের এক প্রতিবেশী বিষয়টি ফাঁস করেন যে, তার স্ত্রী একজন পুরুষ।

তার অভিযোগ, দেয়াল থেকে ঝাঁপ মেরে তার ঘরে ঢুকেছিলেন ইমামের স্ত্রী। তারপর জিনিসপত্র নিয়ে পালিয়ে যান। তারপরেই ওই প্রতিবেশী জানান, ইমামের বিয়ে করা বউ আসলে একজন পুরুষই।

ইমামের প্রতিবেশী চুরির ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দাযের করেন। তার খানিক পরেই পুলিশ ইমাম এবং তার নতুন বউকে থানায় নিয়ে আসে।

Loading...

এ সময় ইমামের স্ত্রী হিজাব পরেছিলেন এবং পায়ে চটি ছিল। পরে একজন নারী পুলিশ কর্মী তাকে পরীক্ষা করার জন্য এগিয়ে যান। কিন্তু পুলিশ কর্মী পরীক্ষা করতেই বেরিয়ে আসে সত্যি! এরপরে পুলিশ ইমামকে বিষয়টি জানান।

পুলিশ অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদের পরে জানিয়েছে, আসলে টাকার জন্যই ইমামকে বিয়ে করেছে সে।

ইমাম পুলিশকে পরে জানান, অভিযুক্তের সঙ্গে তার সাক্ষাৎ ক্যাম্পিসি মসজিদে হয়েছিল। বিয়ের আগে মসজিদেই কাজ করতো তার ‘স্ত্রী’। গলায় নারীদের মতোই আওয়াজ। নারীদের মতোই চালচলন। মাথায় হিজাব পরতো সে।

ইমাম তাকে জানান, ‘আমি বিয়ের জন্য একজন সুন্দরী যুবতীকে খুঁজছিলাম। তখনই হিজাব পরা একজন সুন্দরী যুবতীর সঙ্গে দেখা হয়ে যায় আমার। আমি তাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে ফেলি। সেও বিয়ের প্রস্তাবে রাজি হয়ে যায়।’

এরপরে ইমাম জানিয়েছেন, তখনই তার হবু বউ মানে পুরুষটি জানায়, যতদিন না তাদের বিয়ে হচ্ছে, ততদিন কোনো রকম শারীরিক সম্পর্ক সে করতে পারবে না।

এদিকে ঘটনার পর ওই ইমামকে মসজিদের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

পাঠকের মতামত: