কক্সবাজার, বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে রোহিঙ্গা শিবির

আব্দুর রহমান, টেকনাফ::

ভারী বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে বান্দরবানের তুমব্রু সীমান্তের কোনারপাড়া শূন্যরেখায় (নো-ম্যানস ল্যান্ড) আশ্রিত রোহিঙ্গা শিবির পানিতে তলিয়ে গেছে।
এতে ক্যাম্পের এক হাজার পরিবার আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছে। সেখানে খাবার পানি ও টয়লেটের সংকট দেখা দিয়েছে।
জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার (ইউএনএইসচিআর) প্রাথমিক হিসাব অনুযায়ী তুমব্রু খালের কাছে শূন্যরেখায় প্রায় ১ হাজার ৩০০ রোহিঙ্গা পরিবারের নারী, পুরুষ, শিশু অবস্থান করছিল।
শূন্যরেখার বাসিন্দারা জানান, সেখানে যথেষ্ট খাদ্য সাহায্য মিললেও তারা বিশুদ্ধ পানি ও পর্যাপ্ত টয়লেটের সংকটে ভুগছেন। এখানে তারা যে ব্লকে থাকছেন, সেখানে এক হাজার পরিবারের জন্য মাত্র একটি নলকূপ রয়েছে, আর টয়লেট রয়েছে মাত্র তিনটি। তবে এসব টয়টেলের একটিও নারীদের ব্যবহার উপযোগী নয় বলে জানান তারা।
শুন্যরেখার বাসিন্দা আরিফ বলেন, ‘এত দিন দুই দেশের মাঝখানে বন্দি জীবনে বসবাস করে আসছি। কিন্তু এখন আর এখানে থাকা খুব মুশকিল, কেননা ভারী বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে পুরো শিবিরটি পানিতে ডুবন্ত অবস্থায় রয়েছে, এখানে আর ভালো লাগে না।’
তিনি আরও বলেন, ‘নিজের দেশে আমরা মানসম্মান নিয়ে ছিলাম। কাজ-কারবার, ব্যবসা-বাণিজ্যে শান্তি ছিল। কিন্তু এখন অনেক কষ্টের জীবন যাপন যাচ্ছে। আমরা জন্মভূমিতে ফেরার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে দাবি জানাচ্ছি।’
নাইক্ষ্যংছড়ি ঘুমধুম ইউপি চেয়ারম্যান এ.কে. এম জাহাঙ্গীর আজিজ জানান, তার এলাকায় সকাল থেকে প্রচন্ড ভারী বৃষ্টিপাতে শূন্যরেখা রোহিঙ্গা শিবিরসহ কিছু নিচু এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। বৃষ্টি কমে যাওয়ায় কিছু এলাকা থেকে পানি নেমে গেছে।

পাঠকের মতামত: