কক্সবাজার, রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১

মরিচ্যা চেকপোষ্টে ৫০হাজার পিস ইয়াবাসহ তিনজন আটক

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :
মরিচ্যা যৌথ চেকপোষ্ট ইয়াবা পাঁচারকারীর ৩ সদস্যসহ ৫০,০০০ পিস বার্মিজ ইয়াবা আটক করেছে রামু ব্যাটালিয়ন ৩০বিজিবি।

বিজিবি সূত্রে জানা যায়, কোটবাজার থেকে রামুগামী মিনি পিকআপ এর সিটের পেছনে শপিং ব্যাগে লুকানো অবস্থায় ৫০হাজার পিস বার্মিজ ইয়াবা রয়েছে।
এ তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার(২ নভেম্বর) সকালে মরিচ্যা চেকপোষ্টে তল্লাশি করে সিটের পেছনে লুকানো ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এসময় চালক কুতুপালং পশ্চিমপাড়া এলাকার খুলু মিয়ার ছেলে বোরখান উদ্দিন(২০) কে আটক করা হয়।

৩০ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্ণেল ইব্রাহীম ফারুক সত্যতা নিশ্চিত করে দৈনন্দিন কে বলেন,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মরিচ্যা চেকপোষ্টে রামুগামী মিনি পিক-আপ তল্লাশি করে চালককে আটক করা হয়। এসময় সিটের পেছনে শপিং ব্যাগে লুকানো ৫০হাজার পিস বার্মিজ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। চালকের তথ্যের ভিত্তিতে বিজিবি অধিনায়কের নেতৃত্বে ১০জনের একটি টিম ইয়াবা গ্রহণের সাথে জড়িত আরও দুজনকে আটক করা হয়। তারা হলেন খরুলিয়া এলাকার মৃত আশরাফ আলীর ছেলে নূরুল আজিম (২৬) ও রামুর মেরুল্লা এলাকার সোনা মিয়ার ছেলে আব্দুর রহিম(১৯)।
বিজিবি অধিনায়ক আরও বলেন,
আটককৃত দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে ইয়াবার মূল মালিক হলো সাতকানিয়া এলাকার ইদ্রিস আলমের ছেলে মো. শাকিল (৩০) দীর্ঘদিন ইয়াবা ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত ও সিন্ডিকেট দিয়ে ইয়াবা ব্যবসা পরিচালনা করে। বিকেলে রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,আনসার সহ অভিযানে গেলে চৌমুহনীতে ভাড়ায় থাকা বাসাতে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে তার বাড়িতে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয় এবং তাৎক্ষণিক কোন মাদকদ্রব্য না পাওয়ায় তার বাড়িটি ইয়াবা কারবারির বাড়ি হিসেবে চিহ্নিত করে পোষ্টার লাগানো হয়।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রামু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান বিজিবির এ কর্মকর্তা।

পাঠকের মতামত: