কক্সবাজার, শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

মর্গে নারীর মরদেহ থেকে স্বর্ণালংকার চুরি

সিরাজগঞ্জে শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের মর্গে স্কুলশিক্ষিকার মরদেহ থেকে স্বর্ণালংকার চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ডোমসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

চুরি যাওয়া স্বর্ণালংকারগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে আদালতের মাধ্যমে তিনজনকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তারা হলেন-হাসপাতালের মর্গে দায়িত্বরত ডোম রানা এবং তার সহযোগী শাহ আলম ও সুমন।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকি বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে হাসপাতালের মর্গে দায়িত্বরত ডোম রানা এবং তার সহযোগী শাহ আলম ও সুমনকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, একটি গলার চেন, দুইটি আংটি, দুইটি হাতের বালা, একজোড়া কানের দুল ও নাকফুল তাদের নিজ নিজ বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়। স্কুলশিক্ষিকার মৃতদেহ থেকে স্বর্ণালংকারগুলো চুরি করে ভাগ করে নেয় বলে তারা স্বীকার করেছেন বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

রোববার সকালে সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার মিরপুর মহল্লার কালাচাঁন মোড়ে বাস ও ট্রাকের মাঝে চাপা পড়ে রিকশা আরোহী বনবাড়ীয়া সরকরি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা ইফরাত সুলতানা রুনী তার ছেলেমেয়েসহ নিহত হন। পরে ঘটনাস্থল থেকে শিক্ষিকা ও তার ছেলের মৃতদেহ সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে রোববারই ময়নাতদন্ত না করার জন্য জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে আবেদন করা হয়। পরে সন্ধ্যায় লাশগুলো পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। কিন্তু নিহত ইফরাত সুলতানার গায়ে সোনার একটি চেইন, দুটি আংটি, দুটি হাতের বালা, এক জোড়া কানের দুল ও নাকফুল ছিল না। মামলার বাদী ভিকটিমের ভাই মোসফেকুস সালেহীন নিহত রুনির শরীরের স্বর্ণালংকার না পেয়ে পুলিশে অভিযোগ করেন।

জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ফরিদুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমরা পরে জেনেছি।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. জাহিদুল ইসলাম বলেন, ডোমের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগ থেকেও তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে, দু’সন্তানসহ স্কুল শিক্ষিকা ইফরাত সুলতানা নিহত হওয়ার ঘটনায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পরিবার। মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে শহরের বাজার স্টেশন এলাকায় প্রায় ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আজহারুল ইসলাম, প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি উদয় কুমার পালসহ শিক্ষক সমিতির নেতারা। কর্মসূচি শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে সড়ক, সেতু ও পরিবহনমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

পাঠকের মতামত: