কক্সবাজার, শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১

মাথা ন্যাড়া করে বিজেপি ছাড়লেন বিধায়ক, যোগ দিচ্ছেন তৃণমূলে

মাথা ন্যাড়া করে বিজেপি ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের সুরমা আসনের বিজেপির বিধায়ক আশিস দাস। ত্রিপুরায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের ‘অন্যায়ের প্রায়শ্চিত্ত’ করতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে দাবি করেছেন তিনি।

পশ্চিমবঙ্গের বিখ্যাত কালিঘাট মন্দিরে যজ্ঞ করার পর নিজের মাথা ন্যাড়া করান তিনি। আশিষ দাসের অভিযোগ ত্রিপুরায় বিজেপি রাজনৈতিক নৈরাজ্য এবং বিশৃঙ্খলা তৈরি করেছে। আর সেখানকার জনগণ বিজেপি সরকারের কর্মকাণ্ডে অখুশি। সেই কারণেই দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান তিনি। অতীতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসা করেছেন আশিষ দাস। এমনকি তাকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী পদে দেখতে চাওয়ার আকাঙ্ক্ষাও প্রকাশ করেছেন। এছাড়া গত দুই বছর ধরে তিনি ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের কঠোর সমালোচক।

ধারণা করা হচ্ছে বিজেপি ছাড়ার পর আশিষ বিশ্বাস তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন। ২০২৩ সালের নির্বাচনে ত্রিপুরার ক্ষমতায় যাওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃণমূল কংগ্রেস।

আশিষ দাস বলেন, ‘বিজেপি সরকারের অপশাসনের প্রায়শ্চিত্ত করতে আজ আমি মাথা ন্যাড়া করেছি। আমি দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আর পরবর্তী পদক্ষেপ নির্ধারণ করে দেবে সময়। কিন্তু বিজেপি নেতৃত্বাধীন শাসকদের অধীনে ত্রিপুরায় যে ধরণের নৈরাজ্য এবং অপশাসন চলছে তাতে আমাকে সরে যেতে হয়েছে আর সেই কারণেই গত দুই বছর ধরে আমি এসব অপকর্মের সমালোচনা করেছি এবং পার্টি এবং রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।’

এদিকে ত্রিপুরার বিজেপি সূত্রের বরাতে সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে দল আশিষ দাসের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের ব্যবস্থা নেবে।

কলকাতায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিরও সমালোচনা করেন আশিষ দাস। তিনি অভিযোগ করেন নরেন্দ্র মোদি সরকারি সব সম্পত্তি বেসরকারি মালিকানায় বিক্রি করে দিচ্ছেন।

এর আগে ভবানিপুর উপনির্বাচনে জয় লাভ করায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসা করেন আশিষ দাস। তিনি বলেন, বহু মানুষ ও সংগঠণ চায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী হবেন। একজন বাঙালি হিসেবে তার এই পদে যাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

পাঠকের মতামত: