কক্সবাজার, বুধবার, ১৮ নভেম্বর ২০২০

যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান বাবুলের জানাজা সম্পন্ন

দেশের অন্যতম বড় ব্যবসায়ী গোষ্ঠী যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান মালিক নুরুল ইসলাম বাবুলের জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) বাদ জোহর রাজধানীর কুড়িলে যমুনা ফিউচার পার্ক মসজিদ প্রাঙ্গণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় মন্ত্রিসভার সদস্য, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি, সামাজিক-সাংস্কৃতিক-ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিরা অংশ নেন। এই কঠিন সময়েও তার জানাজায় বহু মানুষের সমাগম ঘটে।

এর আগে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে নুরুল ইসলামের গোসল সম্পন্ন করা হয়। জানাজার পর এই বীর মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় সম্মাননা গার্ড অব অনার দেয়া হয়। এর পর বনানী কবরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তার লাশ দাফন করা হবে।

সোমবার বিকাল ৩টা ৪০ মিনিটে চিকিৎসাধীন রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে মারা যান তিনি।

করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল ‘পজিটিভ’আসায় গত ১৪ জুন এভারকেয়ারে ভর্তি হয়েছিলেন বাবুল। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর।

বাবুলের স্ত্রী সালমা ইসলাম একজন সংসদ সদস্য। জাতীয় পার্টির নেতা সালমা এর আগে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

তাদের ছেলে শামীম ইসলাম যমুনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তিন মেয়ে- শারিয়াত তাসরিন সোনিয়া, মনিকা নাজনীন ইসলাম এবং সুমাইয়া রোজালিন ইসলাম যমুনা গ্রুপের পরিচালক।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নুরুল ইসলাম বাবুলের কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। তার চিকিৎসায় ১০ সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছিল এভার কেয়ারে। এর বাইরেও চীন ও সিঙ্গাপুরের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মতামত নেয়া হয়েছিল। কিন্তু তাকে বাঁচানো যায়নি।

যমুনা বাংলাদেশে বড় শিল্প গ্রুপগুলোর একটি। তৈরি পোশাক ও টেক্সটাইল, রাসায়নিক, চামড়া, ইলেকট্রনিক্স, বেভারেজ, টয়লেট্রিজ, নির্মাণ ও আবাসন খাতে ছড়িয়ে আছে এ গ্রুপের ব্যবসা।

১৯৪৬ সালে জন্ম নেয়া নুরুল ইসলাম বাবুল ১৯৭৪ সালে যমুনা গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করেন। একে একে শিল্প ও সেবা খাতে গড়ে তোলেন তিন ডজন কোম্পানি। বর্তমানে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ কাজ করছে এই গ্রুপে।

ঢাকার বারিধারায় যমুনা ফিউচার পার্ক এবং নির্মাণাধীন মেরিয়টস হোটেলের মালিকানাও রয়েছে যমুনা গ্রুপের হাতে। দৈনিক যুগান্তর ছাড়াও যমুনা টেলিভিশন যমুনা গ্রুপের দুটি প্রতিষ্ঠান।

পাঠকের মতামত: