কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মারা যাবে ২ লাখ মানুষ

যুক্তরাষ্ট্রে ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে করোনা। রোববার মাত্র একদিনে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৮ হাজারের বেশি মানুষ। সোমবার সকাল থেকে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ১৭৭ জন। থেমে নেই মৃত্যুর সংখ্যাও। রোববার মৃত্যুর মিছিলে যোগ হয়েছেন আরও ২৬৪ জন। ফলে সেখানে করোনায় মোট মারা গেছেন ২৪৮৫ জন।

এ অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন মার্কিন সরকারের একজন রোগ বিশেষজ্ঞ। তার মতে, করোনায় দেশের মোট ২ লাখ মানুষ মারা যাবেন।

রোববার স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম সিএনএন’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি এন্ড ইনফেকসাস ডিজিজ’য়ের পরিচালক ড. অ্যান্থনি ফসি।

তিনি বলেন, করোনায় যুক্তরাষ্ট্রের ১ থেকে ২ লাখ মানুষ মারা যেতে পারে। আর আক্রান্ত হবেন আরও ১০ লাখের বেশি মানুষ।

ফসি’র এই ভবিষ্যত গণনায় বিস্মিত হচ্ছেন না অন্যরা। এ সম্পর্কে কানেকপিকাট অঙ্গরাজ্যের ট্রিম্বুলে বসবাসকারী শিক্ষিকা ফ্রিকা অ্যানড্রেড বলেন, ‘আমি তার বর্ণিত ভবিষ্যত মৃত্যুর সংখ্যা শুনে বিস্মিত হইনি। আমি তো মনে করি করোনায় দেশের আরও বেশি লোক মারা যাবে। আমি এখন আমার বৃদ্ধ মাকে নিয়ে চিন্তায় আছি। তাছাড়া আরও যেসব মানুষকে আমি ভালোবাসি তাদের জন্য আমার দুশ্চিন্তা হচ্ছে।’

করোনায় আক্রান্তের দিক দিয়ে এ মুহূর্তে বিশ্বের প্রথম স্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। রোববার পযন্ত সেখানে ১ লাখ ৪২ হাজার ২২৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। বেশ কিছুদিন আগেই করোনার উৎপত্তিস্থল চীনকে হটিয়ে লক্ষাধিক আক্রান্তকে নিয়ে তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্র। তাদের পরের অবস্থানে রয়েছে ইতালি। সেখানে রোববার পর্ন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৯৭ হাজার ৬৮৯ জন। তবে মৃতের সংখ্যায় শীর্ষে রয়েছে ইউরোপের এই দেশটি, ১০ হাজার ৭৭৯ জন।

যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা নিউইয়র্ক রাজ্যের। সেখানে রোববার পর্ন্ত প্রায় ৬০ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। আর মারা গেছে ৯৬৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে মারা গেছেন ২৩৭ জন। অর্থাৎ রোববার যুক্তরাষ্ট্রের সিংহভাগ মৃত্যুই হয়েছে এই অঙ্গরাজ্যটিতে। ওইদিন গোটা দেশে মারা গেছেন ২৪৬ জন।

এই অবস্থায় রোববার যুক্তরাষ্ট্রের লকডাউনের সময়সীম আরও ১৫ দিন বৃদ্ধি করার ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দেশটিতে এপ্রিলের ৩০ তারিখ পর্যন্ত এই লকডাউন বহাল থাকবে।

রোববার হোয়াইট হাউজে দেওয়া এক প্রেস ব্রিফিং এ ট্রাম্প জানান, আগামী দুই সপ্তাহে ভয়াবহ রূপ নেবে যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি। এমনকি মৃতের সংখ্যাও দ্বিগুণ হবে।

পাঠকের মতামত: