কক্সবাজার, রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১

যেসব লক্ষণে বুঝবেন আপনি থাইরয়েডের শিকার

থাইরয়েড নামক রোগটির সঙ্গে আমরা বর্তমানে কমবেশি সকলেই পরিচিত। কীভাবে বুঝবেন আপনার শরীরে থাইরয়েডের কোনও সমস্যা আদৌ আছে কি না? সাধারণত দুই ধরণের থাইরয়েড দেখা যায়। হাইপোথাইরয়েড ও হাইপারথাইরয়েড।

হাইপোথাইরয়েডের ক্ষেত্রে ওজন বেড়ে যাওয়া, ত্বক শুষ্ক দেখানো, ঠান্ডা সহ্য করতে না পারা, ক্লান্তির মতো সমস্যা দেখা যায়। আর হাইপারথাইরয়েডে ওজন হঠাৎ করে কমে যায়। এক্ষেত্রে কোষ্ঠকাঠিন্যে, গরম সহ্য করতে না পারা, অবসাদ, ঋতুস্রাব কম হওয়ার মতো লক্ষণ প্রকট হয়।

থাইরয়েড হল আমাদের শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থি যা মেটাবলিজম, হৃদযন্ত্রের কাজ, তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা, মস্তিষ্কের বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ন্ত্রণ করে। থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে ওজন বেড়ে যাওয়া বা কমে যাওয়া, অস্টিওপোরোসিস, কিডনি-লিভারের সমস্যা, ভুলে যাওয়ার মতো নানা শারীরিক জটিলতা দেখা যেতে পারে। তাই শরীরে থাইরয়েডের সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শমতো খুব তাড়াতাড়ি চিকিৎসা শুরু করুন। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর আমাদের মধ্যে ঘুম ভাব থাকে। কিন্তু থাইরয়েড থাকলে সকালে সারা শরীরে একটা আড়ষ্টতা থাকে। শরীর কিছুটা ভারীও লাগে। প্রায় সব সময়ই ক্লান্ত থাকে।

অল্পদিনের মধ্যে শরীরে হঠাৎ ওজন কমে যাওয়া বা বেড়ে যাওয়াও থাইরয়েডের লক্ষণ। এরকম হলে সঙ্গে সঙ্গেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

থাইরয়েডের সমস্যা দেখা দিলে ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে যায়। এমনকি, নখও খুব বেশি পরিমাণে ভঙ্গুর হয়ে যায়। প্রায়ই পেটখারাপ বা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাও কিন্তু থাইরয়েডের লক্ষণ।

গলার সামনে দিকে মাঝখানে, যেখানে থাইরয়েড গ্রন্থি থাকে, সেখানে কোনও ধরনের ফোলাভাব থাকলে অবিলম্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। থাইরয়েডের ক্ষেত্রে মেয়েদের পিরিয়ডসের সমস্যা দেখা যায়। খুব বেশিদিন ধরে বেশি বেশি ঋতুস্বাব হওয়া বা ১-২ দিনের মধ্যে হঠাৎ করে ঋতুস্রাব বন্ধ হয়ে যাওয়াও থাইরয়েডের লক্ষণ।

থাইরয়েডের ফলে তাপমাত্রার প্রতি সহনশীলতা কমে যায়। তাপমাত্রা সামান্য কমলেই বেশি ঠান্ডা লাগে আবার সামান্য বেড়ে গেলেই অসহ্য গরম লাগে এবং অতিরিক্ত ঘাম হয়।

পাঠকের মতামত: