কক্সবাজার, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

যে ৫ শর্ত দিয়ে সীমিত লকডাউন শুরু

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত তিনদিনের সীমিত লকডাউন শুরু হয়েছে আজ সোমবার। সকাল ৬টা থেকে এই লকডাউন শুরু হয়। চলবে বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত।

এই সময় সব ধরনের গণপরিবহন বন্ধ থাকবে।

চলবে শুধু পণ্যবাহী যান ও রিকশা।
এছাড়া সীমিত পরিসরে খোলা থাকবে সরকারি-বেসরকারি অফিস। বন্ধ থাকবে শপিংমল, মার্কেট, বিনোদন কেন্দ্র। এছাড়া হোটেল-রেস্তোরাঁ খোলা থাকলেও সেখানে বসে খাওয়া-দাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

কেবল পার্সেল সরবরাহ করা যাবে।
এই লকডাউন ঘোষণা করে রবিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। আগের ঘোষণা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে হবে কঠোর লকডাউন।

করোনা সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় আগের সব বিধিনিষেধ ও কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় নতুন পাঁচটি শর্ত সংযুক্ত করে ২৮ জুন সকাল ৬টা থেকে ১ জুলাই সকাল ৬টা পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হলো বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়।

ওই ৫ শর্তে যা বলা হয়েছে-

১. সারাদেশে পণ্যবাহী যানবাহন ও রিকশা ছাড়া সব গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়মিত টহলের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করবে।

২. সব শপিংমল, মার্কেট, পর্যটনকেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে।

৩. খাবারের দোকান, হোটেল-রেস্তোরাঁ সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খাবার বিক্রয় (শুধুমাত্র অনলাইন/টেকওয়ে) করতে পারবে।

৪. সরকারি-বেসরকারি অফিস/প্রতিষ্ঠানগুলো শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় সংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারীর উপস্থিতি নিশ্চিত করতে নিজ নিজ অফিসের ব্যবস্থাপনায় তাদের আনা-নেওয়া করতে হবে।

৫. জনসাধারণকে মাস্ক পরার জন্য আরও প্রচার প্রচারণা চালাতে হবে এবং প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

পাঠকের মতামত: