কক্সবাজার, রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

রামুতে মাদক সেবনকারীদের হামলায় মহিলাসহ আহত ২

বিশেষ প্রতিনিদি:: 

রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়ায় মাদক সেবনে বাঁধা দেওয়ায় মাদক সেবনকারীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়ে একই পরিবারের মহিলা সহ দুজনকে গুরুতর আহত করেছে। আহতরা বর্তমানে রামু উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ পশ্চিম পাড়ার জাকের আহমদ প্রকাশ গাঁজা জাকের এর পরিবার নিত্যদিন মাদক সেবন থেকে শুরু করে মাদক ব্যবসা করে আসছে। তার পরিবারের মাদক বেপরোয়া সেবন ও মাদক ব্যবসার কারণে এলাকার ছাত্রসমাজ, যুবসমাজ ও বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ মাদকের প্রতি আসক্ত হচ্ছে এবং এলাকার শৃঙ্খলা ধ্বংস হচ্ছে। তাদের এই মাদক সেবনে বাঁধা দেন ওই এলাকার স্হানীয় বাসিন্দা মোস্তাক আহমদ, ফলে তার উপর ক্ষীপ্ত হয়ে ৩১ আগষ্ট সোমবার সকাল ১১ দিকে জাকের আহমদ প্রকাশ গাঁজা জাকের ও তার দুই ছেলে হামিদুল হক ও হুমায়ুন সহ ধারালো অস্ত্র নিয়ে মোস্তাক আহমদ এর পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে তার স্ত্রী খোরশিদা বেগম ও তার ১৫ বছরের ছেলে নুরুল আজিমকে গুরুতর আহত করে। পরে আহতদের ঘটনাস্থল থেকে চিকিৎসার জন্য দ্রুত রামু উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়, বর্তমানে তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এবিষয়ে স্হানীয় মেম্বারের সাথে মুঠোফোনে কল দিয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি ঘটনাস্থলে ছিলামনা কিন্তু এই ঘটনার বিষয়ে শুনেছি এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে শুধু এই পর্যন্ত জানি।

কাউয়ারখোপ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনজুর আলম বলেন, জাকের আহমদ এর পুরো পরিবার মাদক সেবনকারী এবং এলাকার খারাপ লোক তাদের কারণে এলাকার ছাত্রসমাজ থেকে শুরু করে সবাই ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। তারা কথায় কথায় মানুষের সাথে ঝগড়া করে। মোস্তাক আহমদ এর পরিবার জাকের এর মাদক কারবারে বাঁধা দেওয়ায় তাদের মেরে রক্তাক্ত করেছে।

এবিষয়ে কাউয়ারখোপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ জানান, আমি ঘটনার বিষয়ে একজনের কাছ থেকে শুনেছি কিন্তু ঘটনার বিষয় নিয়ে দুপক্ষের কেউ আমার সাথে যোগাযোগ করেনি, যদি কোন পক্ষ আমার সাথে যোগাযোগ করে তাহলে আমি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

পাঠকের মতামত: