কক্সবাজার, রোববার, ৬ ডিসেম্বর ২০২০

রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরের চেয়ে সমুদ্রপথে পাচার বন্ধ হওয়া জরুরি

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরের চেয়ে জরুরি সমুদ্র পথে পাচার বন্ধ হওয়া। এমন মন্তব্য বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি ও সমন্বয়কারী মিয়া সেপ্পোর। তিনি বলেন, ভাসানচর নিয়ে রোহিঙ্গাদের মাঝে ইতিবাচক ও নেতিবাচক উভয় মতই রয়েছে। জানান, ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের বসবাস নিয়ে সরকারের সাথে কাজ করছেন তারা।

মাত্র কয়েক কিলোমিটার এলাকায় ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গার বসবাস। যাদের স্থানান্তরের আলোচনা চলছে কয়েক বছর ধরেই। সেখানে আসে ভাসানচরের নাম। যদিও সরকারের এমন সিদ্ধান্তের সাথে একমত নয় দাতা ও উন্নয়ন সংস্থা। আপত্তি আছে রোহিঙ্গাদের। আর তাই গত মাসে রোহিঙ্গাদের একটি প্রতিনিধি দলকে ভাসানচর ঘুরিয়ে আনা হয়। যা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া প্রতিনিধি দলের।

বিষয়টি সরেজমিনে দেখতে জাতিসংঘের উদ্যোগে কক্সবাজার যান ঢাকার যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইইউ দূতরা। ঢাকা ফিরে তারা দেখা করেন পররাষ্ট্র সচিবের সাথে। জানান, প্রয়োজনে তারা দেখতে যাবেন ভাসানচর। জাতিসংঘের কর্মকর্তার মতে, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরের চেয়ে, সমুদ্র পথে পাচার বন্ধ করা কম গুরুত্বপূর্ণ নয়।

গত মাসেও বঙ্গোপসাগর দিয়ে ইন্দোনেশিয়ায় পাচার হয়েছে তিনশো’র বেশি রোহিঙ্গা।

পাঠকের মতামত: