কক্সবাজার, বুধবার, ১৮ মে ২০২২

রোহিঙ্গার বাড়ির সিলিন্ডারে ইয়াবা, মিয়ানমার মুদ্রা, স্বর্ণ!

কক্সবাজারের টেকনাফে পৃথক অভিযানে বিভিন্ন অপরাধে জড়িত থাকায় পিতা—পুত্র, মা, স্ত্রীসহ ৭ জনকে গ্রেপ্তার কর হয়েছে। জব্দ করেছে ইয়াবা, মিয়ানমার মুদ্রা, স্বর্ণ ও সিএনজি অটোরিক্সা।

শুক্রবার (১৩ মে) ভোররাতে কেরুনতলীর নাফনদী সংলগ্ন একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এসব জব্দ করে টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়ন।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন- টেকনাফ বরইতলীর মৃত আব্দুল জাব্বারের ছেলে মো. শফি উল্লাহ (৫৫), মো. শফি উল্লাহর ছেলে আনোয়ার হোসাইন (১৯), মো. শফি উল্লাহর স্ত্রী তৈয়বা বেগম (৪০), আনোয়ার হোসাইনের স্ত্রী লাকি আক্তার (১৯), উত্তর লেদার শফিক আহমদের ছেলে মো. পারভেজ (১৬), সোলতান আহমদেরছেলে মো. জালাল (২৬) এবং রহমত আলীর ছেলে মো. রেদোয়ান (১৯)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার। পূর্বকোণকে তিনি বলেন, শুক্রবার ভোরে টেকনাফের কেরুনতলীর নাফনদী সংলগ্ন একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে শফি উল্লাহ, আনোয়ার হোসাইন, তৈয়বা বেগম ও লাকি আক্তারকে আটক করা হয়। পরে তাদের বাসায় থাকা গ্যাস সিলিন্ডার তল্লাশি করা হয়। সেখান থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা, ২ লাখ ৩০ হাজার ২শ’ মিয়ানমার মুদ্রা কিয়াত, পাচার হওয়া ভিকটিমদের নিকট হতে জোরপূর্বক রেখে দেয়া ১৪ গ্রাম স্বর্ণালংকার উদ্ধার করা হয়। তাদের দেয়া তথ্যে হ্নীলা চৌধুরী পাড়া স্লুইচ গেটে লুকানো অবস্থায় আরো ৩০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, এছাড়া রাত ৩টায় টেকনাফের প্রধান সড়কে সিএনজি অটোরিক্সা তল্লাশি করে শরীরের বিভিন্ন অংশে অভিনব কায়দায় ফিটিং করা ৬০০ পিস ইয়াবা, একটি সিএনজি অটোরিক্সা ও তিনটি ব্যবহৃত মুঠোফোনসহ পারভেজ, জালাল এবং মো. রেদোয়ানকে গ্রেপ্তার করে।

পাঠকের মতামত: