কক্সবাজার, রোববার, ২২ নভেম্বর ২০২০

রোহিঙ্গা ক্যাম্পকে সবুজায়ন করতে সাড়ে ৩ লাখ গাছের চারা রোপন করা হবে: আরআরআরসি 

 ফারুক আহমদ, উখিয়া::
শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন  কমিশনার মোহাম্মদ  মাহবুবুল আলম তালুকদার  বলেছেন  মিয়ানমারে  নির্যাতিত  লক্ষ লক্ষ  রোহিঙ্গাদের কে মানবিক আশ্রয় দিতে গিয়ে উখিয়া-টেকনাফের বিশাল বনজ সম্পদের  অপূরণীয়  ক্ষতি হয়েছে। পরিবেশ সু রক্ষা ও হারানো বনজ সম্পদ ফিরিয়ে আনার লক্ষে সরকার ও আন্তর্জাতিক  দাতা সংস্থা সমূহ  রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় ব্যাপক  বনায়নের কর্মসূচি  হাতে নিয়েছেন।  তিনি আরো বলেন , বর্ষা মৌসুমে  ১২৮ হেক্টর  রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিশাল পাহাড়ি এলাকায়   প্রায় সাড়ে ৩ লাখ জলজ, বনজ ও ঔষধি গাছের  চারা রোপণ করা হচ্ছে।
বুধবার (২৬ আগষ্ট)  দুপুরে  কুতুপালংয়ের  ফোর এক্সট্রেকশন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অনুষ্ঠিত  সবুজ করণ বিষয়ক আলোচনা সভা ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি  ২০২০ উদ্বোধন কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আরআরআরসি একথা বলেন।
আন্তর্জাতিক শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা UNHCR  এবং পরিবেশক বিষয়ক সংস্থা CNRS এর  যৌথ  উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করা হয়।
ক্যাম্প ইনচার্জ মাহফুজার রহমানের সভাপতিত্বে বর্ণাঢ্য বৃক্ষ রোপন অনুষ্ঠানে EETWG, WFP, FAO, IOM, IUCN, AF এর প্রতিনিধি সহ মোট ১৫ টি সংস্থার প্রতিনিধি উপস্থিত ছিল।
অনুষ্ঠানে  শরণার্থী  ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোঃ মাহবুব আলম তালুকদার বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এখন সবুজ অরণ্য দেখে খুবই ভাল লাগছে। হারানো বৃক্ষ সম্পদ ফিরিয়ে আনতে   কর্মরত সংস্থাগুলি প্রশংসার দাবি রাখেন। বিশেষ করে CNRS সংস্থা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বনায়নের   পিছনে অনেক প্রশংসনীয় অবদান রেখেছেন। আশা করি CNRS সহ বাকি সকল সংস্থা যারা এই ক্যাম্পে কর্মরত আছেন ২০২০ সালের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির মাধ্যমে তারা আরো সুন্দর  ক্যাম্পের পরিবেশ আমাদেরকে উপহার দিবেন।
 আলোচনা সভা শেষে  শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোঃ মাহবুব আলম তালুকদার বৃক্ষরোপণ এর মাধ্যমে কর্মসূচি উদ্বোধন করেন।

পাঠকের মতামত: