কক্সবাজার, শুক্রবার, ২০ নভেম্বর ২০২০

রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সংঘর্ষে আঞ্চলিকভাবে অশান্তি ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা

বেপরোয়া হয়ে উঠেছে রোহিঙ্গারা। আধিপত্য বিস্তারসহ নানা কারণে কক্সবাজারে ক্যাম্পে বাড়ছে অভ্যন্তরীণ সংঘাত। গেল ৩ বছরে নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষসহ বিভিন্ন ঘটনায় প্রাণ গেছে অন্তত ৮০ জনের। সবশেষ তিনদিনে মারা গেছে ৭ জন। এসব ঘটনায় নিরাপত্তা ঝুঁকির পাশাপাশি আতঙ্ক বেড়েছে স্থানীয়দের মাঝে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনও মনে করেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এই অশান্তি ছড়াতে পারে আঞ্চলিকভাবে।

বুধবার দুপুরে মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ক্যাম্পের চারিদিকে কাঁটাতারের বেড়া দিতে চাইলে বিদেশি সংস্থা ও এনজিওর আপত্তির কারণে তা দেওয়া যায়নি। এমনকি ক্যাম্পে যেন তারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, মানবপাচার কার্যক্রম চালাতে না পারে সেজন্য ফোরজি নেটওয়ার্ক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বন্ধ রাখা যায়নি এনজিওদের চাপের মুখে।

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান, সংকট সমাধানে দ্রুততার সাথে রোহিঙ্গোদের নিজ মাতৃভূমিতে ফেরত নেয়ার।

সম্প্রতি কুয়েত সফর প্রসঙ্গে বলেন, আজ বুধবার বিকেলে দেশটির সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় বৈঠকে বসবে কবে থেকে তাদের সাথে ফ্লাইট চালু হবে এই ইস্যুতে। করোনার আগে আসা শ্রমিকদের কাজে ফেরত নেবার বিষয়ে আহবান জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

পাঠকের মতামত: