কক্সবাজার, শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে শ্রীলঙ্কার সহযোগিতা চান পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রত্যাবাসনে শ্রীলঙ্কার সক্রিয় সহযোগিতা কামনা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন।

শুক্রবার (১৯ মার্চ) সোনারগাঁও হোটেলে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসের সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সহযোগিতা চান। শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রাজাপাকসেও এ বিষয়ে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

এসময় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অঞ্চলিক অফিসের আঞ্চলিক পরিচালক পদে ২০২৩ সালের জন্য এবং মানবাধিকার কাউন্সিলে ২০২৩-২৫ সালের জন্য বাংলাদেশি প্রার্থীর পক্ষে শ্রীলঙ্কার সমর্থন কামনা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ বিষয়ে শ্রীলঙ্কার জোরালো সমর্থন আছে বলেও উল্লেখ করেন মাহিন্দা রাজাপাকসে।

এর আগে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে স্বাক্ষরিত কিছু চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক বাস্তবায়নের জন্য ড. মোমেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন এবং তা বাস্তবায়নের চেষ্টা করবে বলেও আশ্বাস প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী রাজাপাকসে।

এছাড়া দুই দেশের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধি, উপকূলীয় নৌ-পথ চালু, অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি, দ্বিপাক্ষিক বিনিয়োগ উন্নয়ন ও সুরক্ষা চুক্তি, বাংলাদেশি ওষুধ সামগ্রী শ্রীলঙ্কায় রপ্তানিসহ বিভিন্ন বিষয় আলোচনায় স্থান পায়। এসময় বাংলাদেশে তুরস্ক, যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের মতো শ্রীলঙ্কার স্থায়ী দূতাবাস নির্মাণের অনুরোধ জানানো হয়।

এদিকে বাংলাদেশের অথনৈতিক উন্নয়ন ও করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের প্রশংসা করেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণ গ্রহণ করে কারোনার মধ্যেও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের সময় বাংলাদেশ সফর করায় শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী জানান, মুসলিম নারীদের জন্য সেদেশে বোরখা পরা নিষিদ্ধ করা হয়নি। বোরখা নিষিদ্ধের জন্য কিছু মহলের পক্ষ থেকে দাবি তোলা হলেও শ্রীলঙ্কার সরকার তা এখনো গ্রহণ করেনি।

তাছাড়া শ্রীলঙ্কায় মুসলিমদের দাহ করা হচ্ছে বলে গণমাধ্যমে অপপ্রচারণা করা হয়েছে উল্লেখ করে মাহিন্দা রাজাপাকসে জানান, মুসলিম রীতি অনুসারে সম্প্রতি ৩৯ জন মুসলিমকে সমাহিত করা হয়েছে।

সাক্ষাৎকালে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মতামত: